সংবাদ শিরোনামঃ
bnbd-ads
bnbd-ads

রংপুরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর
৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০৩:৫৩ আপডেট: ০৩:৫৩

রংপুরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন

রংপুর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নগরীতে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে নগর ভবনে মেয়র মো. মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বেশ কয়েকটি শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর মধ্যদিয়ে এই ক্যাম্পেইনের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

ভিটামিন ক্যাম্পেইনকে সরকারের সবচেয়ে সফল উদ্যোগ বলে মনে করেন রসিক মেয়র মোস্তফা।

তিনি বলেন, শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওনোর প্রয়োজন রয়েছে। এই ক্যাপসুলে শিশুর অন্ধত্ব রোধ, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি ও শিশুর দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধি করে। ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুলে কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। আজকাল আর রাত কানা রোগী তেমন একটা দেখা যায় না।

তিনি বলেন, শতভাগ ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে মাঠে নেমেছে রংপুর সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মীরা। ক্যাপসুল খাওয়ানোর পর যদি শিশুদের বমি বমি ভাব হয়, এতে অভিভাবকদের ঘাবড়ানোর কিছু নেই। সঙ্গে সঙ্গে নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

রংপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. কামরুজ্জামান ইবনে তাজ জানান, রংপুর সিটি করপোরেশনের ৩৩টি ওয়ার্ডে ২৯৫টি কেন্দ্রে ১ লাখ ২৬ হাজার ২২৯ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হচ্ছে। এই কার্যক্রম সফল করতে অতিরিক্ত ৮টি ভ্রাম্যমাণ টিমের বাইরেও প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় সারির ৭৭ সুপারভাইজারসহ ৩৬৪ জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছেন। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সিটি এলাকার নির্দিষ্ট পয়েন্টে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ১৯ হাজার ২৩৩ জন শিশুকে নীল রং এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ১ লাখ ৬ হাজার ৯৯৬ জন শিশুকে লাল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হচ্ছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিটি করপোরেশনের সচিব আবুল সালেহ মো. মুসা জঙ্গী, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল মান্নান, নগর পরিকল্পনাবিদ নজরুল ইসলাম, প্রধান হিসাব রক্ষক কর্মকর্তা আব্দুল হাকিম, হাবিবুর রহমান, স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান আব্দুল কাইয়ুম ও স্যানিটারী ইন্সপেক্টর শোয়েব ইকবালসহ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

অপরদিকে জেলার ১৮৩২টি কেন্দ্রে মোট ৩ লক্ষ ৫৪ হাজার ৭৩৮ জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়। এর মধ্যে ৬ মাস থাকে ১১মাস বয়সী ৩৫৫৪৮ এবং ১২মাস থেকে ৫৯ মাস পর্যন্ত ৩ লক্ষ ১৫ হাজার ৪০৩ জন এবং ৬ মাস থেকে ১১মাস পর্যন্ত ২ শত ১০ প্রতিবন্ধী শিশু ও ১২ থেকে ৫৯ মাস পর্যন্ত ৫শত ৭৭ প্রতিবন্ধী শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়।

সকাল ৮টায় রংপুর সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়নের সাহাবাজপুর কমিউনিটি ক্লিনিকে ক্যাম্পেইনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. অমল চন্দ্র সাহা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. আবু মোহাম্মদ জাকিরুল ইসলাম ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. কানিজ সাবিহা।

ব্রেকিংনিউজ/এসআর/এনএসএন

bnbd-ads
bnbd-ads