কাশ্মিরে ১৩ হাজার মুসলিম শিশুকে আটকে রেখেছে ভারত সেনারা: প্রতিবেদন

ভারত-পাকিস্তান
২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০৯:৪৭ আপডেট: ১১:০৩

কাশ্মিরে ১৩ হাজার মুসলিম শিশুকে আটকে রেখেছে ভারত সেনারা: প্রতিবেদন

জম্মু-কাশ্মিরে স্বায়ত্বশাসন তুলে নেয়ার পর সেখানকার মুসলিমদের ওপর নেমে আসে অমানুষিক নির্যাতন-নিপীড়ন। ভারতীয় সেনাদের আগ্রাসনে কাশ্মিরের স্কুল-কলেজ, হাটবাজারগুলো বন্ধ প্রায়। জনজীবন মৃত্যুর মুখোমুখি। 

ন্যাশনাল ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ওম্যান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কাশ্মিরে হাজার হাজার শিশুকে আটক করে রাখা হয়েছে। তাতে করে সেখানে স্বাভাবিক জীবন ফিরে আসছে বলে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের দাবি আবারও সন্দেহের মুখে পড়েছে। 

সরেজমিন পর্যবেক্ষণে এই মানবাধিকার সংস্থাটি জানিয়েছে, গেল ৫ আগস্ট স্বায়ত্তশাসন বাতিল করার পর কাশ্মিরে প্রায় ১৩ হাজার মুসলিম শিশুকে আটক করা হয়েছে। যাদের বেশিরভাগের বয়স ১৪ বছর। গেত দেড় মাস যাবত তারা আটক আছে। 

সংস্থাটির দাবি, প্রত্যেক শিশুর মুক্তির জন্য তাদের পরিবারকে গুণতে হচ্ছে ৬০ হাজার রুপি।

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজ্যের স্বায়ত্তাশাসন-সংবলিত সংবিধানের অনুচ্ছেদ ৩৭০ ও ৩৫ক বাতিল করার পর থেকে সেখানে কঠোর কারফিউ জারি করা হয়। তাতে বন্ধ হয়ে যায় সব ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা।

তবে এখন পর্যন্ত কাশ্মিরে কতজন শিশুকে আটক রাখা হয়েছে কিংবা কেন তাদের আটকে রাখা হয়েছে সে সম্পর্কে সরকারি তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ করা হয়নি। ভারত সেনাদের ওপর পাথর নিক্ষেপের দায়ে এইসব শিশুদের আটকে রাখা হয়েছে বলে দাবি করছে কতিপয় মহল। 

ন্যাশনাল ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ওম্যানের অ্যাক্টিভিস্টরা গত ১৭ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর কাশ্মির সফর করে সেখানকার পুলিশ, চিকিৎসক ও শিক্ষকদের সঙ্গে নানা সামাজিক অবক্ষয় নিয়ে কথা বলে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। 

তাদের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, ছেলেদের গ্রেফতার করার সময় কর্তৃপক্ষ বাড়াবাড়ি রকমের শক্তিপ্রয়োগ করছে। আর আটক রাখার সময় অনেকের ওপর নির্যাতনও চালানো হচ্ছে।

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

bnbd-ads