আবারও উত্তাল কাশ্মির, চারিদিকে ভারতবিরোধী বিক্ষোভ গোলাগুলি

ভারত-পাকিস্তান ডেস্ক
৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ১২:৫৩ আপডেট: ০১:৫৫

আবারও উত্তাল কাশ্মির, চারিদিকে ভারতবিরোধী বিক্ষোভ গোলাগুলি

দ্বিতীয় দফায় কারফিউ জারির পর আবারও উত্তাল হয়ে উঠেছে জম্মু-কাশ্মির পরিস্থিতি। বিভিন্ন স্থানে বড় ধরনের বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ছে। চারিদিকে ভারতবিরোধী শ্লোগানে কাপছে এই মরণ উপত্যকা।

গেল শুক্রবার জাতিসঙ্ঘে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দেয়া ভাষণের প্রভাবে গেল ২৪ ঘণ্টায় জম্মু-কাশ্মির এলাকায় অন্তত ২৩টি বিক্ষোভ হয়েছে।

এদিকে দ্বিতীয় দফায় দিল্লি সরকার কাশ্মিরে কারফিউ জারির পাশাপাশি মোবাইল, ইন্টারনেট এবং ল্যান্ড ফোন বন্ধ করে দিয়েছে। এলাকার মানুষের চলাফেরায় বিধিনিষেধ আরোপসহ রাস্তায় যানবাহন চলাচলও নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে।

গেল শনিবার রাজধানী শ্রীনগরসহ অন্তত ৯টি এলাকায় ভারত সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে স্থানীয় জনগণ। গতকাল রবিবারের মতো সোমবার সকালেও রাজধানীতে বেশ কিছু বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে। 

জাতিসঙ্ঘে ইমরান খানের ভাষণের পর শুক্রবার রাতেই কাশ্মিরের স্বাধীনতার ডাক দিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে আসে শত শত কাশ্মিরি। শুক্রবার রাতে শুরু হওয়া বিক্ষোভের পর ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠে ভারত অধিকৃত কাশ্মির। যা ক্রমে চরম আকার ধারণ করছে। 

গেল শনি ও রবিবার দিনভর জম্মু-কাশ্মিরের বিভিন্ন এলাকায় স্বাধীনতাকামীদের বিরুদ্ধে ভারতীয় বাহিনী অভিযান চালিয়েছে। রামবন জেলায় ভারতীয় সেনাদের গুলিতে অন্তত ৪ বিদ্রোহী নিহত হয়েছে। এসময় ঘণ্টার পর ঘণ্টাব্যাপী চলা গোলাগুলিতে বিদ্রোহীদের গুলিতে এক ভারতীয় সেনা সদস্যও নিহত হয়।

গেল শুক্রবার সাধারণ অধিবেশনে দেয়া ভাষণে ইমরান ভারত কাশ্মির থেকে বিধিনিষেধ তুলে নিলে ‘রক্তবন্যা বয়ে যেতে পারে’ বলে হুঙ্কার তোলেন। এর প্রভাব পুরো বিশ্বে পড়বে বলে বিশ্বনেতাদের সতর্ক করেছেন তিনি।

ভারত সরকার গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নিলে এর কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে কাশ্মিরি মুসলমানদের পাশে শক্ত অবস্থান নেয় পাকিস্তান। 

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

bnbd-ads