সংবাদ শিরোনামঃ
bnbd-ads
bnbd-ads

অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৫ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ১২:০০ আপডেট: ০৩:০৮

অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসকে গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করতেন বলে অভিযোগ করেছেন ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরেনো। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র এক প্রতিবেদন থেকে এ খবর জানা যায়। 

মোরেনো বলেন, অ্যাসাঞ্জ লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসকে গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করতেন। আর ইকুয়েডরের সাবেক সরকার অন্য দেশের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তি চালিয়ে যেতে অ্যাসাঞ্জকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিতো।

তিনি বলেন, ইকুয়েডরের দূতাবাস গুপ্তচরবৃত্তির কেন্দ্র হতে পারে না। এজন্য অ্যাসাঞ্জের ৭ বছরের আশ্রয়ের আবেদন নাকচ করা হয়েছে। এর পেছনে অন্য কোনো দেশ কলকাঠি নাড়েনি।

অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগকে ভয়ংকর বলে উল্লেখ করেছেন তার আইনজীবী জেনিয়ার রবিনসন। তিনি বলেন, দূতাবাসে ডেকে এনে অ্যাসাঞ্জকে ব্রিটিশ পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার ঘটনা চাপা দিতেই গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনছেন প্রেসিডেন্ট মরেনো। যা সত্য নয়।

প্রসঙ্গত, আশ্রয়ের শর্ত ভঙ্গ ও নথিপত্রে ত্রুটি থাকার যুক্তি দেখিয়ে গত বুধবার অ্যাসাঞ্জের আশ্রয় প্রত্যাহার করে নেয় ইকুয়েডর। পরদিন বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) লন্ডনে ইকুয়েডর দূতাবাসের মধ্যে ঢুকে অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতার করে যুক্তরাজ্য পুলিশ।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

bnbd-ads
bnbd-ads