আমাজনে আগুনের ঘটনায় বাণিজ্য চুক্তি বন্ধের হুমকি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৪ আগস্ট ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০৮:৩০ আপডেট: ১০:০৮

আমাজনে আগুনের ঘটনায় বাণিজ্য চুক্তি বন্ধের হুমকি

আমাজন বনাঞ্চলে আগুন নেভাতে ব্রাজিল আরও বেশি পদক্ষেপ না নিলে দক্ষিণ আমেরিকা ব্লকের সঙ্গে বড় ধরনের বাণিজ্য চুক্তি থেকে বিরত থাকার হুমকি দিয়েছে ফ্রান্স এবং আয়ারল্যান্ড।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সবচেয়ে বড় মুক্ত-বাণিজ্য চুক্তি এটি। দক্ষিণ আমেরিকা ব্লকে আছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, উরুগুয়ে এবং প্যরাগুয়ে।

২০ বছরের দীর্ঘ আলোচনার পর উভয়পক্ষ এ বাণিজ্য চুক্তিতে পৌঁছলেও চুক্তিটিতে এখনো ইউরোপীয় পার্লামেন্টের দেশগুলোর অনুমোদন প্রয়োজন। ফ্রান্স এবং আয়ারল্যান্ড এখন এ অনুমাদনই আটকে দেওয়ার হুমকি দিল।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর অভিযোগ, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কে তার অবস্থান নিয়ে তাকে মিথ্যা বলেছেন।

চলতি বছর ব্রাজিলের আমাজন বনাঞ্চলে অগ্নিকাণ্ড অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। পুড়তে থাকা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ এই বনাঞ্চল নিয়ে আন্তর্জাতিক মহল উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

ইউরোপীয় নেতারা আমাজনের আগুন নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন। যুক্তরাজ্য এবং জার্মানিও আমাজানের আগুন নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

আমাজনের দুর্দশার জন্য পরিবেশবাদীরা ব্রাজিল সরকারকেই দুষেছে। তাদের অভিযোগ, ব্রাজিলের কট্টর ডানপন্থি প্রেসিডেন্ট বোলসোনেরো কাঠুরে ও কৃষকদের বনটি উজাড়ে উৎসাহ দিচ্ছেন।

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট শুক্রবার বলেছেন, তিনি আগুন নেভাতে সেনা মোতায়েনসহ নানা বিকল্প পন্থা ভেবে দেখছেন। তবে তিনি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ফায়দার জন্য ব্রাজিলের পরিস্থিতিতে হস্তক্ষেপ করার অভিযোগও করেছেন।

ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা চলতি বছরের প্রথম আট মাসেই আমাজন বনাঞ্চলে রেকর্ড সংখ্যক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটার কথা জানিয়েছে। দেশটির দ্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর স্পেস রিসার্চ (ইনপে) জানিয়েছে, উপগ্রহের তথ্যে গত বছর একই সময়ের তুলনায় এ বছর ৮৫ শতাংশ বেশি আগুন লাগার চিত্র দেখা গেছে।

পরিবেশবাদী গ্রুপগুলো আগুন নেভানোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে শুক্রবার ব্রাজিলজুড়ে বিভিন্ন নগরীতে বিক্ষোভ ডেকেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

ব্রেকিংনিউজ/এসএসআর