খুলনায় মাদরাসাছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ৬

খুলনা ব্যুরো
৪ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার
প্রকাশিত: ১০:২১ আপডেট: ১০:২২

খুলনায় মাদরাসাছাত্রীকে গণধর্ষণ, আটক ৬

খুলনায় নবম শ্রেণীর এক মাদরাসাছাত্রীকে (১৬) গণধর্ষণের অভিযোগে ছয় যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) রাত ১২টা থেকে শুক্রবার (৪ অক্টোবর) দুপুর ১২টা পর্যন্ত রূপসার শ্রীফলতলা, বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে ও সাতক্ষীরার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত যুবকদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো- রূপসার শ্রীফলতলার শরীফুল ইসলাম (২১), নাঈম (১৮), বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের রিয়াজ (১৮) ও সাতক্ষীরার সোহেল (১৮), আসাদউল্লাহ (২০), কামরুল (১৮)।

ধর্ষণের শিকার ওই মাদরাসাছাত্রীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীর স্বজনরা জানায়, ওই মাদরাসাছাত্রী মোড়েলগঞ্জে নানা বাড়িতে থেকে একটি মাদরাসায় পড়া লেখা করে। তার মা থাকেন খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গা ট্রাক স্ট্যান্ডের কাছে। মেয়েটি মায়ের কাছে বেড়াতে এসে গত বুধবার (৩ অক্টোবর) তার কথিত প্রেমিক মোড়েলঞ্জের নিয়ামুল নামের এক যুবকের সঙ্গে হাদিস পার্কে ঘুরতে যায়। মেয়েটির সঙ্গে তার আট বছরের এক খালাতো ভাই ছিল। 

ধর্ষক নিয়ামুল মেয়েটিকে ঘুরতে নেওয়ার কথা বলে রূপসার শ্রীফলতলার একটি বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা কয়েকজন যুবকের মধ্যে দুইজন ও নিয়ামুল মেয়েটিকে পাশের একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। বাকি কয়েকজন যুবক ছোট ছেলেটিকে পাশে ঘুরতে নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর মেয়েটি বাসায় এসে তার মায়ের কাছে বিষয়টি জানায়। 

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) ভুক্তভোগীর মা রূপসা থানায় এসে মৌখিক অভিযোগ করেন। 

এ বিষয়ে খুলনা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ ‍সুপার (এএসপি) মো. নূর আলম সিদ্দিকী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে আমার নেতৃত্বে পুলিশের বিশেষ টিম অভিযানে নামে। অভিযান চালিয়ে ছয় জনকে আটক করা হয়েছে। মূল আসামি নিয়ামুলকে আটক করার জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

ব্রেকিংনিউজ/এসএসআর

bnbd-ads