জি কে শামীমের ৭ দেহরক্ষীর জামিন নামঞ্জুর, ফের কারাগারে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০২:৫৬ আপডেট: ০৫:০৩

জি কে শামীমের ৭ দেহরক্ষীর জামিন নামঞ্জুর, ফের কারাগারে
জি কে শামীমের (মাঝে) ৭ দেহরক্ষী

‘টেন্ডার কিং’ খ্যাত যুবলীগ নেতা গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীমের ৭ দেহরক্ষীর জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত। একইসঙ্গে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) অস্ত্র আইনের মামলায় গ্রেফতার এই ৭ দেহরক্ষীর ৪ রিমান্ড শেষে তাদের আদালতে হাজির করলে তাদের পক্ষে জামিনের আবেদন করেন আইনজীবীরা। 

শুনানি শেষে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলামের আদালত প্রত্যেকের জামিন নামঞ্জুর করেন। 

এর আগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর অস্ত্র মামলায় এই ৭ দেহরক্ষীর ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। 

এর আগে রাজধানীর গুলশান থানার অস্ত্র মামলায় যুবলীগ নেতা জি কে শামীমের সাত দেহরক্ষীকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

ওই ৭ দেহরক্ষী হলেন, দেলোয়ার হোসেন, মুরাদ হোসেন, জাহিদুল ইসলাম, সহিদুল ইসলাম, কামাল হোসেন, সামসাদ হোসেন ও আমিনুল ইসলাম।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজির সুনির্দিষ্ট অভিযোগে গত ২০ সেপ্টেম্বর দুপুরে যুবলীগ নেতা জি কে শামীম ও তার ৭ অস্ত্রধারী দেহরক্ষীকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)। পরদিন শনিবার অবৈধ অস্ত্র ও মাদকের পৃথক দুই মামলায় জি কে শামীমকে ১০ দিন ও তার ৭ দেহরক্ষীকে ৪ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। 

গত প্রথম দফায় গত ২১ সেপ্টেম্বর অস্ত্র মামলায় তাদের ৪ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। এর আগের দিন ২০ সেপ্টেম্বর জি কে শামীমের সঙ্গে তাদের গুলশান থানাধীন নিকেতনের অফিসে অভিযান চালিয়ে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (র‌্যাব)। অভিযানে ১ কোটি ৮০ লাখ নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া ১৬৫ কোটি টাকার ওপরে এফডিআর (স্থায়ী আমানত) পাওয়া যায়, যার মধ্যে তার জি কে শামীমের মায়ের নামে ১৪০ কোটি ও ২৫ কোটি টাকা তার নামে। পাওয়া যায় মার্কিন ডলার। জি কে শামীম ও তাঁর দেহরক্ষীদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় অস্ত্র। আর পাঁচ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়। 

এ ঘটনায় জি কে শামীমের নামে তিনটি মামলা হয়। এই তিনটি মামলার মধ্যে অস্ত্র আইনে ও মানি লন্ডারিং আইনে দায়ের করা মামলায় তার ৭ দেহরক্ষীকে আসামি করা হয়।

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

bnbd-ads