কাজে ফাঁকি দিয়েও তারা ভালো কর্মী!

লাইফস্টাইল ডেস্ক

১১ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০২:০০ আপডেট: ০২:১২

কাজে ফাঁকি দিয়েও তারা ভালো কর্মী!

অফিসের কাজে তেমন মনোযোগ নেই। কিন্তু কর্তা ব্যক্তিদের কথায় সমর্থন জুগিয়ে, প্রশংসা করে, কেবল যোগাযোগ ও কৌশল কাজে লাগিয়ে ভালো কর্মী হয়ে যান অনেকে। প্রত্যেক অফিসে এমন কর্মীর সংখ্যা কম নয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের গবেষণা প্রতিষ্ঠান হাল্ট ইন্টারনেশনাল বিজনেস স্কুল।

এই ধরনের ব্যক্তিদেরকে ‘আত্ম-প্রচারকারী’ বলে উল্লেখ করে গবেষণাটি বলছে, প্রকৃতার্থে কাজের কাজ কিছু না করেও কেবল যোগাযোগ ও কৌশল কাজে লাগিয়ে আত্ম-প্রচারকারী ব্যক্তিরা অফিসে বড় কর্তাদের চোখে ভালো কর্মী হিসেবে বিবেচিত হন।

শুধু তাই নয়, অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায়, যারা প্রকৃতই নিবিষ্ট চিত্তে কাজ করে যান তেমন কর্মীদের চেয়ে আত্ম-প্রচারকারীরা এগিয়ে থাকেন।

যুক্তরাজ্যের সাম্প্রতিক এই গবেষণা বলছে, এসব ব্যক্তিরা দিন শেষে ‘টিম-ওয়ার্ক’ বা ‘দলগত কাজে’ আসলে কোনো উপকারেই আসে না।

তাই এই আত্ম-প্রচারকারী ব্যক্তিদেরকে চিহ্নিত করা হচ্ছে মূলত, ‘কাজের চেয়ে আওয়াজ বেশি’ দেওয়া ব্যক্তি হিসেবে।

এই গবেষণা থেকে একদল কর্মীকে চিহ্নিত করা হয়েছে যাদেরকে দূর থেকে দেখলে মনে হয় যে, তারা নিজের কাজে অতি গভীরভাবে সম্পৃক্ত। কিন্তু নিবিড়ভাবে মনোযোগ দিলে বোঝা যায়, এসব ব্যক্তি আসলে ‘আত্ম-প্রচারকারী’ মাত্র।

গবেষণাটি বলছে, এই ধরণের ব্যক্তিরা অফিসের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে আলাপে জড়িত হয় এবং তাদের কথা ও যুক্তিতে সায় দেয়।

এসব করার মাধ্যমেই তারা কর্তাব্যক্তিদের চোখে পড়ে এবং কর্ম ক্ষেত্রে ভালো কাজের সুনাম পায় এবং এমনকি পদোন্নতিও পেয়ে যান।

এ ধরণের ব্যক্তিদেরকে এই গবেষণায় কাজে গভীরভাবে সম্পৃক্ত হবার ‘ভানধারী’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এই কর্মীরা অনেক সময়ই দেখা যায় অফিসে বেশ প্রশংসা, সুনাম ও পদোন্নতি পেয়ে যায়।

এই ধরনের কর্মীরা অফিসে পুরস্কৃত হবার বিষয়টিকে ‘অত্যন্ত হতাশাব্যঞ্জক’ বলে উল্লেখ করেন এক গবেষক। কেননা এরা কাজের ক্ষেত্রে সহকর্মীদের কম সহযোগিতা করে থাকেন।

এ ধরণের ব্যক্তিদের কারণে কাজের পরিবেশ বিনষ্ট হতে পারে এবং অন্যরা দলগত কাজে আগ্রহ হারিয়ে ফেলতে পারে বলেও জানান ওই গবেষক।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি

bnbd-ads
bnbd-ads