যার বুদ্ধি যত বেশি সে তত একা থাকতে চায়

লাইফস্টাইল ডেস্ক
১৮ আগস্ট ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০৪:৩৮ আপডেট: ০৫:৫৭

যার বুদ্ধি যত বেশি সে তত একা থাকতে চায়

সেই স্কুলজীবন থেকে শুরু করে কলেজ-ইউনিভার্সিটি সবখানেই চারপাশে অসংখ্য বন্ধুবান্ধব। কত হইহুল্লোড়, কত খেলাধুলা মাতামাতি। কিন্তু সবাই কি বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে আড্ডা দিতে পছন্দ করেন? সবাই করেন না। অনেক সহপাঠী আছে যারা একটু আলাদা একটু একা থাকতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। 

গ্রিক রাষ্ট্রবিজ্ঞানী দার্শনিক এরিস্টটল বলেছিলেন- ‘যে সমাজে বাস করে না সে হয় পশু না হয় দেবতা।’ কিন্তু যারা বেশি আড্ডা পছন্দ করেন না কিংবা একটু একা থাকতে চান তাদেরকে কি করা যেতে পারে। তাদের সম্পর্কে কেমন ধারণা হতে পারে।  

সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখানো হয়েছে, যারা যত বুদ্ধিমান তারা তত বেশি একা থাকতে চান। একলা থাকতেই তারা খুশি অনুভব করেন। 

ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামের করা গবেষণাটি থেকে জানা যায়, ১৮ থেকে ২৮ বয়সী প্রায় ১৫ হাজার মানুষের ওপর এই গবেষণা চালিয়ে এমন তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। 

যাদের ওপর গবেষণা চালানো হয়েছে তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে, তারা কোথায় থাকেন, কীভাবে জীবনে খুশি থাকেন, যেখানে থাকেন তারা সেখানে কত লোকের সঙ্গে থাকেন, সেখানকার সামাজিক জীবন কী ধরনের? 

গবেষণায় জানানো হয়, যারা বহু মানুষের সঙ্গ পছন্দ করেন না, একটু একা থাকতে চান তারা আর দশজনের চেয়ে কিছুটা হলেও বেশি বুদ্ধিমান। এই মানুষগুলো একা থাকার মধ্যেই সবচেয়ে বেশি আনন্দ বোধ করেন।

সঙ্গে এটিও বলা হয়েছে, বুদ্ধিমান মানুষ চুপচাপ নিজের জীবনের লক্ষ্য জয় করতে চান। তাই তারা একটু নিরিবিলি একটু মুখচোরা স্বভাবের হয়ে থাকে। 

ব্রেকিংনিউজ/এমআর