bnbd-ads
bnbd-ads

‘সাংবাদিকদের পেটে লাথি মেরে কোনো মন্ত্রী টিকতে পারেন নাই’

স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট
১৫ মে ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৬:২৬

‘সাংবাদিকদের পেটে লাথি মেরে কোনো মন্ত্রী টিকতে পারেন নাই’

 সাংবাদিকদের পেটে লাথি মেরে কোনো মন্ত্রী টিকতে পারেন নাই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল।  

বুধবার (১৫ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন আয়োজিত ‘গণমাধ্যমে ছাঁটাই বন্ধ, নবম ওয়েজ বোর্ডের গেজেট প্রকাশ ও ঈদের আগে বেতন-বোনাস প্রদান’ শীর্ষক এক মানববন্ধনে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

মোল্লা জালাল বলেন,  ‘গতকাল একটা পত্রিকায় তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ একটি ইন্টারভিউ দিয়েছেন। সেখানে গণমাধ্যম কীভাবে চলতে হবে, কোন আইনে চলতে হবে, সাংবাদিকের বেতন ভাতা কীভাবে দিতে হবে, কর্মীকে ছাঁটাই করতে হলে কীভাবে করতে হবে, তার পাওনা কিভাবে পরিশোধ করতে হবে সে বিষয়গুলো আমি মন দিয়ে পড়েছি। আপ‌নি রেডিও-টেলিভিশনে সংবাদপত্রের সাক্ষাৎকার দিয়ে বলছেন, গণমাধ্যম চলতে হবে রাষ্ট্রের প্রচলিত আইন অনুসারে। আমরা দেখতে চাই এই জায়গাটায় আপনি আন্তরিক কিনা। আর যদি আন্তরিক না হন, এর মধ্যে কোন ধরনের ধোঁয়াশা থাকে তাহলে আপনাকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, আপনার আগেও অনেক তথ্যমন্ত্রী ছিলেন, ভারী মন্ত্রী ছিলেন। কিন্তু সাংবাদিকদের পেটে লাথি মেরে কোন মন্ত্রী টিকতে পারে নাই।’

৩০ মের মধ্যে সকল মিডিয়ার বেতন ভাতা বোনাস দিতে হবে উল্লেখ করে এই সাংবাদিক নেতা বলেন, ‘বাড়তি কিছু চাইনা। আইন আমার জন্য যা নির্ধারণ করেছে তা কড়ায়-গণ্ডায় পেতে চাই। আমার যদি যোগ্যতা না থাকে, আইন নির্ধারণ করে দিয়েছে আমাকে আপনি কীভাবে বিতাড়িত করবেন। যাওয়ার আগে আমার পাওনা কিভাবে পরিশোধ করবেন। যদি না করেন আমরা অসহায় এর মত যাবো না। ৩০ মের মধ্যে সকল সংবাদপত্র, সংবাদ সংস্থা, টেলিভিশন মিডিয়ায় সকল বেতন-ভাতা বোনাস দিতে হবে।’

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘এর কোনো বিকল্প নেই। যদি কোনো প্রতিষ্ঠানে বেতন ভাতা দিতে বাহানা করে তার জন্য ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, সাংবাদিক শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ যেকোনো সিদ্ধান্ত নেবে। এবং তার সমুদয় দায় সরকার ও  তথ্য মন্ত্রণালয়কে বহন করতে হবে। আমরা কোনো বে-আইনি পথে যাব না, আইনি অধিকার নিশ্চিত করতে চাই।’

যদি ৩০ মে এর মধ্যে সকল মিডিয়া বেতন-ভাতা পরিশোধ না করে তবে ৩০ তারিখ পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও তিনি ঘোষণা দেন।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সোহেল হায়দার চৌধুরীসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ব্রে‌কিংনিউজ/এএইচএস/জেআই

bnbd-ads
MA-in-English
bnbd-ads