প্রধানমন্ত্রীর নাতি জায়ানের লাশ আসছে দুপুরে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৪ এপ্রিল ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৮:১৬ আপডেট: ১১:৫৭

প্রধানমন্ত্রীর নাতি জায়ানের লাশ আসছে দুপুরে

শ্রীলঙ্কায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাংসদ শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরীর (৮) লাশ দেশে আসছে আজ। বুধবার ( ২৪ এপ্রিল) দুপুর ১টা ১০ মিনিটে শ্রীলংকা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মরদেহ পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

সেখান থেকে লাশ সরাসরি বনানীর ২ নম্বর রোডের ৯ নম্বরে তার নানার (শেখ সেলিম) বাড়িতে নিয়ে আসা হবে। এরপর বনানীর চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে জানাজা শেষে বাদ আসর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে জায়ানকে।

এদিকে জায়ানের জানাজার জন্য বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠ প্রস্তুত করা হচ্ছে। এরই মধ্যে প্যান্ডেল টানানো হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দুপুরে চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে আসেন শেখ সেলিম। নাতি জায়ান চৌধুরী নিহত হওয়ার পর প্রথমবারের জন্য বাসার বাইরে বেরিয়েছিলেন তিনি।

মাঠে প্রবেশ করেই শেখ সেলিম জায়ানের লাশ রাখার জন্য নির্ধারিত স্থানে যান। সেখানে পূর্বপরিকল্পিত ১৬ বাই ১২ ফুট মঞ্চের পরিবর্তে ১৮ বাই ১২ ফুট করার নির্দেশনা দেন। সেই সঙ্গে মঞ্চ ২ ফুট পর্যন্ত উঁচু করে তা কালো কাপড় দিয়ে ঢেকে ফেলার জন্য বলেন। পাশাপাশি জানাজা যেন সুষ্ঠু ও শৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে শেষ হয় তার জন্য বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন। এ সময় নাতি জায়ানের জন্য সবার কাছে দোয়া চান শেখ সেলিম।

মঙ্গলবার বনানীর চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে জামাতা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্সের শারীরিক অবস্থার সর্বশেষ খবর জানান শেখ সেলিম। রবিবার শ্রীলংকায় একই হামলায় গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন প্রিন্স।

শেখ সেলিম সাংবাদিকদের জানান, তার জামাতার শরীর থেকে তিন লিটার রক্ত বের হয়ে গেছে। অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। লিভারে বোমার স্পি­ন্টার পাওয়া গেছে। স্টমাক কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এখন আইসিইউতে আছে। ৭২ ঘণ্টা পার না হলে কিছু বলা যাবে না। তার পায়ের যে অবস্থা তাতে এখন হাসপাতাল থেকে সরানো সম্ভব নয়।

এ সময় শেখ সেলিমের ছোট ভাই শেখ ফজলুর রহমান মারুফ বলেন, বুধবার দুপুর ১টা ১০ মিনিটে শ্রীলংকা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে জায়ানের লাশ আসবে। বাদ আসর বনানী চেয়ারম্যান বাড়ি মাঠে জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

প্রসঙ্গত, শেখ সেলিম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফুপাতো ভাই। সেলিমের মেয়ে শেখ আমেনা সুলতানা সোনিয়া তার স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও দুই ছেলেকে নিয়ে শ্রীলঙ্কায় গেছেন বেড়াতে। তারা উঠেছিলেন কলম্বোর পাঁচ তারকা একটি হোটেলে। রবিবার (২১ এপ্রিল) ইস্টার সানডের প্রার্থনার মধ্যে তিনটি গির্জা ও কয়েকটি হোটেলে বোমা হামলা হয়। এর মধ্যে ওই হোটেলের নিচতলার রেস্তোরাঁয় সকালের নাস্তা করতে গিয়েছিলেন প্রিন্স ও তার বড় ছেলে জায়ান চৌধুরী। ছোট ছেলে জোহানকে নিয়ে শেখ সোনিয়া ওই সময় হোটেলের কক্ষে ছিলেন। বোমা হামলায় পর মশিউল হক চৌধুরী আহত হন এবং জায়ানকে অনেকক্ষণ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে হাসপাতালে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়। 

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

bnbd-ads