ছেলের দেখা পাননি, এরশাদের বাসার গেইট থেকে ফিরতে হলো বিদিশাকে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৫ জুলাই ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ০৫:৪৫ আপডেট: ০৫:৪৮

ছেলের দেখা পাননি, এরশাদের বাসার গেইট থেকে ফিরতে হলো বিদিশাকে

প্রায় দেড় দশক আগে এরশাদের সঙ্গে বিদিশার বিয়ে ছিল তখনকার রাজনৈতিক অঙ্গনের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা। তাদের সংসারে একমাত্র পুত্র শাহতা জারাব (এরিক এরশাদ)। বিয়ের পর জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে বিদিশার সক্রিয় হওয়ায় ক্ষিপ্ত হন এরশাদের প্রথম স্ত্রী রওশন এরশাদ। ২০০৫ সালে এরশাদ ও বিদিশার বিচ্ছেদ হয়। এর পর পুত্র এরিককে নিয়ে এরশাদ ও বিদিশার যুদ্ধ আদালত পর্যন্ত গড়ায়। শেষ পর্যন্ত আদালতের রায়ে এরিকের দায়িত্ব পান এরশাদ। 

এদিকে এরশাদের মৃত্যুতে কান্নায় শোকে পাথর হয়ে গেছেন এরিক এরশাদ। গতকাল রাজধানীর বারিধারায় প্রেসিডেন্ট পার্ক বাসভবনের নিচে বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়ে এরশাদপুত্র বলেন, ‘আমার বাবা দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য সারাজীবন কাজ করে গেছেন। তার জন্য সবাই দোয়া করবেন। আমার বাবা যেন বেহেশতবাসী হোন।’ 

এদিকে এরশাদের মৃত্যুর খবরে রবিবার রাতেই আজমীর শরিফ থেকে দেশে ফিরেন সাবেক স্ত্রী বিদিশা ইসলাম। সোমবার সকাল সোয়া ৭টার দিকে এরশাদের বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসভবনে সন্তান এরিককে দেখতে যান বিদিশা। তবে তাকে বাসার ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন বিদিশা। 

এর পর সোমবার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন এরশাদের সাবেক এই স্ত্রী। ব্রেকিংনিউজের পাঠকের জন্য বিদিশার স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

‘বাবার মৃত্যুতে আমার ছেলে এরিক এর কান্নায় দেশবাসীও কেঁদেছে। আমি পাগলের মতো ছুটে চলে এসেছি দেশে। কিন্তু দেশে এসেও বাধার শিকার আমি। কোথায় স্বামী লাশ কোথায় ছেলে? আমার সাথে এরিককে কথাও বলতে দিচ্ছে না। দেখা করা তো দূরের কথা। এমনিতেই আমার ছেলে প্রতিবন্ধী। এই সময় যেখানে মাকে বেশি প্রয়োজন তখন আমার ছেলেকে নিয়েও রাজনীতি। শেষ পর্যন্ত মা হিসেবে ছেলের জন্য যদি জীবন দিতে হয় আমি তাই করবো।’

এর আগে এরশাদের মৃত্যুর খবর পেয়ে গতকাল রবিবার (১৪ জুলাই) বিদিশা তার ফেসবুক পেজে একটি শোকাহত স্টাটাসে লিখেন- ‘এ জন্মে আর দেখা হলো না। আমিও আজমীর শরীফ আসলাম, আর তুমিও চলে গেলে। এত কষ্ট পাওয়ার থেকে মনে হয় এই ভালো ছিল। আবার দেখা হবে হয়ত অন্য এক দুনিয়াতে, যেখানে থাকবে না কোনো রাজনীতি।’

গতকালই ফেসবুকে প্রোফাইল ছবিতে কালো ব্যাজের ছবি পোস্ট করেন বিদিশা।

উল্লেখ্য, গতকাল রবিবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এরশাদ। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর।

ব্রেকিংনিউজ/এমআর