যে সব হত্যাকাণ্ড বিশ্বকে চমকে দিয়েছিলো

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৩০ জুন ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০১:৫৫

যে সব হত্যাকাণ্ড বিশ্বকে চমকে দিয়েছিলো

সম্প্রতি বরগুনার রিফাত হত্যাকাণ্ড নিঃসন্দেহে একটি বীভৎস, মর্মান্তিক ও ক্ষোভ-উত্তেজক ঘটনা। এ হত্যাকাণ্ড পুরো দেশকে চমকে দিয়েছে। একজন নিরীহ তরুণ এভাবে প্রকাশ্যে খুন হতে পারে, তা কেউ কল্পনাতেও ভাবেনি। এই হত্যাকাণ্ড যথাযথ, উদাহরণযোগ্য এবং দ্রুত ন্যায়বিচারের দাবিদার। হোমার তার বিখ্যাত ‘অডিসি’তে বলেছেন, ‘হত্যাকাণ্ড অব্যাহত থাকবে, যদি তার যথাযথভাবে বিচার না নয়।’ এবার বিশ্বের অন্যান্য দেশে নজর দেয়া যাক। বিশ্বে বিভিন্ন সময়ে এমন কয়েকটি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, যা শুধু ওই দেশকে নয়, বরং পুরো বিশ্বকে চমকে দিয়েছে।

জুলিয়াস সিজার
খ্রিষ্টপূর্ব ৪৪ সালের ১৫ মার্চ রোমান সেনাপতি সিজারকে হত্যা করা হয়েছিল। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন বেশ কয়েকজন সিনেটর। সিজারের মরদেহে মোট ২৩টি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন পাওয়া গিয়েছিল। সিজার হত্যার মূল ষড়যন্ত্রকারী ছিলেন তারই পরম বন্ধু মার্কুস ব্রুটাস। সিজারের মৃত্যুর পর খ্রিষ্টপূর্ব ৩০ সাল পর্যন্ত গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়েছিল।

ফ্রানৎস ফার্ডিনান্ড
১৯১৪ সালের ২৮ জুন সারায়েভোতে ফার্ডিনান্ডের গাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। তিনি অস্ট্রো-হাঙ্গেরিয়ান সাম্রাজ্যের উত্তরাধিকারী ছিলেন। প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরুর অন্যতম কারণ হিসাবে মনে করা হয় এই হত্যাকাণ্ডকে।

আব্রাহাম লিংকন
১৮৬১ ও ১৮৬৫ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে যে গৃহযুদ্ধ ছড়িয়ে পড়েছিল সেটা থামাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন দেশটির ১৬তম প্রেসিডেন্ট লিংকন। এছাড়া তার সময়েই যুক্তরাষ্ট্রে দাসত্বের অবসান হয়েছিল। ১৮৬৫ সালের ১৪ এপ্রিল তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। হত্যায় প্রাণ যাওয়া প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট ছিলেন লিংকন। হত্যাকারী জন বুথ দাসত্বপ্রথা বিলুপ্তের চরম বিরোধী ছিলেন। ছিলেন ‘কনফেডারেসি’-র সমর্থক।

মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র
‘আই হ্যাভ এ ড্রিম’-খ্যাত মার্টিন লুথার কিংকে হত্যা করা হয় ১৯৬৮ সালের ৪ এপ্রিল। যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গদের জন্য সমান অধিকার চালুর পক্ষে সোচ্চার ছিলেন তিনি। এজন্য তাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়েছিল।

জন লেনন
বিটলস খ্যাত লেনন যখন নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটানে তার বাড়িতে ঢুকছিলেন তখন তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ১৯৮০ সালের ৮ ডিসেম্বর এই ঘটনা ঘটে।

মাহাত্মা গান্ধী
অহিংস আন্দোলনের পথিকৃত গান্ধীকে ১৯৪৮ সালের ৩০ জানুয়ারি হত্যা করা হয়। ১৯৩৪ সাল থেকে তাকে পাঁচবার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল।

জন এফ কেনেডি
১৯৬৩ সালের ২২ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের ৩৫তম প্রেসিডেন্ট কেনেডির হত্যার খবর সারা বিশ্বকে চমকে দিয়েছিল। ডালাসে খোলা ময়দানে অনুষ্ঠিত প্যারেডে অংশ নেয়ার সময় তাকে গুলি করেন লি হার্ভে ওসওয়াল্ড।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি