‘২১ আগস্ট নিয়ে উপহাস করায় রিজভীদেরও বিচার হওয়া উচিত’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০৯:২৬ আপডেট: ০৯:২৭

‘২১ আগস্ট নিয়ে উপহাস করায় রিজভীদেরও বিচার হওয়া উচিত’
ফাইল ছবি

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার নির্মম হত্যাকান্ড নিয়ে উপহাস করায় রিজভীদেরও বিচার হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) আয়োজিত ‘‘বঙ্গবন্ধু’র শিক্ষা ও প্রযুক্তি ভাবনা: চলমান ও আগামীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় করণীয়’ সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন। 

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০০৪ সালে এই হত্যাকান্ডকে যেভাবে উপহাস করা হয়েছিল, গতকাল রিজভী সাহেব সংবাদ সম্মেলনে একইভাবে এ হত্যাকান্ডকে উপহাস করে তিনি বিএনপির ন্যাক্কারজনক ভূমিকারই পুনরাবৃত্তি করেছেন। রিজভী বলেছেন, এটি আওয়ামী লীগের সাজানো ঘটনা, তারা আত্মহত্যা করতে সেখানে গিয়েছিল। এই ধরনের কথা যারা বলে তাদেরকে বিচারের আওতায় আনা প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘এধরনের হত্যাকান্ড ভবিষ্যতে ঘটানোর জন্য এমন উস্কানি দেয়া হয়। যারা এধরনের কথা বলে উপহাস করে, উস্কানি দেয়, রিজভী আহমেদসহ তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনা প্রয়োজন। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি খালেদা জিয়াকেও বিচারের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন, তাকে জিজ্ঞসা করলে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গ্রেনেড ব্যবহারের রহস্যসহ আরো বহু সত্য বেরিয়ে আসবে।’ 

আওয়ামী লীগের এ মুখপাত্র বলেন,  ‘সত্য প্রকাশের স্বার্থে, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সত্য জানার স্বার্থে ভবিষ্যতে যেন এ ধরণের নৃশংস ঘটনা যাতে না ঘটে, রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে থাকা কেউ যেন এই ধরনের মদদ বা উস্কানি না দেয়, সহায়তা না করে, সেজন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে বিচারের আওতায় আনা প্রয়োজন। তারেক জিয়ার সর্বোচ্চ শাস্তির পাশাপাশি খালেদা জিয়াকেও বিচারের আওতায় আনা প্রয়োজন।’

ড. হাছান বলেন, ‘গতকাল ছিল সেই নৃশংসতার ১৫তম বছর যে একুশে আগস্টে বৃষ্টির মতো গ্রেনেড ছুঁড়ে ঢাকা শহরে প্রকাশ্যে দিবালোকে একটি রাজনৈতিক দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রীর সমাবেশে হামলা চালিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার অপচেষ্টা হয়েছিল। তখন এই হত্যাকান্ড নিয়ে উপহাস করা হয়েছে। আর আজ দিবালোকের মতো সব প্রমাণিত হয়েছে, স্পষ্ট হয়েছে সে হত্যাকান্ডের পেছনে তৎকালীন সরকারের ইন্ধন।’

আইডইবি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি এ কে এম এ হামিদের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঞা, কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক রওনক মাহমুদ এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. মোরাদ হোসেন মোল্ল্যা। সেমিনারের বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন শিক্ষাবিদ ড. সৈয়দ আব্দুল আজিজ ও ড. শাহ আলম মজুমদার। 

ব্রেকিংনিউজ/আরএইচ/জেআই