কুমিল্লার আদালতে হত্যাকাণ্ড একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা: হানিফ

মো. শাহীনুর রহমান, পাবনা প্রতিনিধি
১৮ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০৮:৫৭

কুমিল্লার আদালতে হত্যাকাণ্ড একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা: হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, ‘‘কুমিল্লার আদালতে হত্যাকাণ্ড একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। দেশে আইনের শাসন নেই-বিএনপি এমন কথা বলার আগে আয়নায় নিজেদের চেহারা দেখুক। কারণ বিএনপি ক্ষমতায় থাকতে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় আদালতে বোমা হামলাসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করা হয়েছিল। বর্তমানে যে দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটছে তার বিরুদ্ধে সরকার কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করছে।’

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে পাবনা সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। 

এ সময় হানিফ আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনার ট্রেনে হামলার মামলায় দণ্ডিতদের পক্ষ নিয়ে সাফাই গেয়ে বিএনপি প্রমাণ করেছে, ওই সময় শেখ হাসিনার ট্রেনে সন্ত্রাসী হামলায় বিএনপির উচ্চ পর্যায়ের ইঙ্গিত ছিল। বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল, তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দেশের মানুষ দেখেছে। তাদের প্রত্যেকটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিচার করা হবে।’

পরে শহরের দোয়েল কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গনে পাবনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন হানিফ। এর আগে জাতীয় সঙ্গীতের সুরে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের সূচনা করেন নেতৃবৃন্দ।

জেলা স্বেচ্ছাসবেক লীগ আয়োজিত সম্মেলন উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাওছার। প্রধান বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ নাথ এমপি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুর রহমান শরীফ ডিলু এমপি, সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি, পাবনা-১ আসনের এমপি ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, পাবনা-২ আসনের এমপি আহমেদ ফিরোজ কবির, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাদিরা ইসলাম জলি এমপি।

বিশেষ বক্তার বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান, তানভীর শাকিল জয়, সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল হাসান জুয়েল, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লিটন, সহ-শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক গোলাম সারওয়ার, সদস্য ইশতিয়াক আহমেদ লিন। 

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন পাবনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক জামিরুল ইসলাম মাইকেল। সঞ্চালনা করেন সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান সুইট।

এদিকে, দীর্ঘ প্রায় ১৩ বছর আহ্বায়ক কমিটি দিয়ে চলার পর নতুন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলেও কমিটি গঠন ছাড়াই শেষ হয় জেলা স্বেচ্ছসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। দুই পর্বের অনুষ্ঠানে বিকেলে দ্বিতীয় পর্বে নতুন কমিটির জন্য সভাপতি ও সম্পাদক পদে প্রার্থীদের নাম প্রস্তাব করা হয়। এ সময় কেন্দ্রীয় নেতারা পরবর্তীতে কমিটি ঘোষণা করার কথা জানিয়ে পাবনা ত্যাগ করেন। 

সভাপতি পদে যাদের নাম প্রস্তাব হয়েছে তারা হলেন- জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান সুইট, সাবেক সহ-সভাপতি আব্দুল আজিজ, সাবেক সহ-সভাপতি আহসানুল সরকার ও  জেলা যুবলীগের সাবেক উপ-প্রচার সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী। 

সাধারণ সম্পাদক পদের প্রার্থীরা হলেন- সাবেক ছাত্রনেতা সেলিম হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আহম্মেদ শরীফ ডাবলু, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রুমন, সাবেক সভাপতি রুহুল আমিন এবং জেলা ছাত্রলীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মামুন আজিজ খান। 

ব্রেকিংনিউজ/জেআই

bnbd-ads