তিস্তায় নৌকাডুবি, নিখোঁজ ৫

জেলা প্রতিনিধি
৬ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০৪:৫৭ আপডেট: ০৬:০৯

তিস্তায় নৌকাডুবি, নিখোঁজ ৫

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলায় তিস্তা নদীতে ২৫ জনের মতো যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা ডুবে অন্তত ৫ জন নিখোঁজ রয়েছে। রবিবার (৬ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙ্গা ইউনিয়নের বুড়িরহাট এলাকায় নদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কাউকে উদ্ধার করা যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, বুড়িরহাট ঘাট থেকে ২৫ জনের মতো যাত্রী নিয়ে চর খিতাবখাঁ যাওয়ার পথে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে এক শিশুসহ অন্তত ৫ জন নিখোঁজ হয়। খবর পেয়ে দুপুর ২টার দিকে রংপুর ফায়ার সার্ভিসের দুইজন ডুবুরি এসে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেন। তবে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কারও হদিস পাওয়া যায়নি।

দুর্ঘটনার শিকার নৌকার মাঝি আকবর আলী জানান, ‘দুপুর ১২টার দিকে নৌকা ছাড়ার পর টি-বাঁধের মাথায় ধাক্কা লেগে নৌকাটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পানির প্রবল স্রোতে ডুবে যায়। আমরা সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও অনেকে স্রোতে ভেসে যায়।’

ডুবে যাওয়া নৌকা থেকে উদ্ধার হওয়া আঃ জলিল (২৮), আঃ বাতেন (৪৫), আতাউর রহমান (৩৬) বলেন, নৌকায় ২০/২৫জন যাত্রী ছিল। তারা সকলে খিতাবখাঁ মধ্য চরে আবাদী ক্ষেত দেখভাল করার জন্য যাচ্ছিল। কিন্তু সকাল সাড়ে ১১টার দিকে নৌকাটির স্রোতে পড়ে ডুবে যায়। 
রাজারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃষ্ণ চন্দ্র সরকার জানান, আজ বুড়িরহাট স্পারের কাছ থেকে একটি খেয়া নৌকা ২৫ জন যাত্রী নিয়ে তিস্তা নদী পাড়ি দেওয়ার সময় ডুবে যায়। এ সময় কয়েকজন যাত্রী সাঁতার কেটে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও ৫ জনের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাশেদুল হক প্রধান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি জানান, কুড়িগ্রাম থেকে ফায়ার সার্ভিসের দল এসে নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারে কাজ করছে। রংপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলও ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঘটনার পরপরই জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, পুলিশ সুপার মো. মেনহাজুল আলম, রাজারহাট উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদ সোহরাওয়ার্দ্দী ঘটনাস্থল পরিদর্শন ছিলেন এবং নিখোঁজদের সন্ধান অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেন।

ব্রেকিংনিউজ/এম