bnbd-ads
bnbd-ads

ফেসবুকের কিছু টিপস

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক
২০ মে ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ১০:০০

ফেসবুকের কিছু টিপস

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং এর জগতে ফেসবুক এখন তুমুল জনপ্রিয়। এটি এখন আর শুধু বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ বা ছবি-ভিডিও দেখে সময় কাটানোর মাধ্যম নয়। এখন এটি খবরের প্রাথমিক উৎসের পাশাপাশি অনলাইনে মানুষকে খুঁজে বের করার একটি প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে। 

ফেসবুকের কিছু টিপস জানা থাকলে মন্দ হয় না। কিছু টিপস তুলে ধরা হলো:

১. ফেসবুকে অনেকের নামের পাশে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম দেখা যায়, আবার অনেকের দেখা যায় না। আসলে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম এখানে নেটওয়ার্কের নাম। কোনো নেটওয়ার্ক যুক্ত করতে চাইলে প্রথমে ওপরে ডান পাশে Account থেকে Account Settings-এ ক্লিক করুন। নতুন যে পৃষ্ঠা আসবে সেটি থেকে Networks-এ ক্লিক করুন। 

এখন ডান পাশে Network Name বক্সে কোনো নাম লিখে Join Network-এ ক্লিক করুন। এভাবে আপনি একাধিক নেটওয়ার্কের সঙ্গেও যুক্ত হতে পারবেন। আবার Leave Network-এ ক্লিক করে আপনার নামের পাশের নেটওয়ার্কটি বাদও দিতে পারবেন।

২. ফেসবুকের সব লেখা ইংরেজিতে। চাইলে ফেসবুকের সব লেখা বাংলায় পরিবর্তন করতে পারেন। এর জন্য প্রথমে ওপরে ডান পাশে Account থেকে Account Settings-এ ক্লিক করুন। নতুন পৃষ্ঠা এলে সেখান থেকে Language-এ ক্লিক করুন। 

এখন Primary Language-এ English(US)-এর পরিবর্তে বাংলা নির্বাচন করে একটু অপেক্ষা করুন দেখবেন পুরো ফেসবুক বাংলা হয়ে গেছে। আবার ইংরেজি করতে চাইলে একই পদ্ধতিতে বাংলার পরিবর্তে English(US) সিলেক্ট করে বেরিয়ে আসুন। 

৩. আপনার নাম, ই-মেইল ঠিকানা, পাসওয়ার্ড, নিরাপত্তা প্রশ্ন ইত্যাদি পরিবর্তন করতে চাইলে Account থেকে Account Settings-এ ক্লিক করে নতুন পেজ এলে সেখান থেকে সবকিছু পরিবর্তন করতে পারবেন। আপনি যদি আর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে না চান তাহলে নিচে থেকে Deactivate-এ ক্লিক করে আপনার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দিতে পারবেন। আবার Activate করতে চাইলে পুনরায় সাইন ইন করুন। তাহলেই Activate হয়ে যাবে।

৪. কারও সঙ্গে গোপনে নিরাপদ কথোপকথন চালাতে চান? ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে আপনি এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন বেছে নিতে পারেন। হোয়াটসঅ্যাপে এ ফিচারটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে রয়েছে, কিন্তু ম্যাসেঞ্জারে এটি ব্যবহার করতে হলে তা চালু করে নিতে হয়। ম্যাসেঞ্জার সেটিংস থেকে এই বাটনটি চালু করে নিতে হবে। নির্দিষ্ট সময় পর বার্তা মুছে ফেলার সুবিধাও আছে এতে।

৫. মানুষের মৃত্যুর পরও ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে যায়। এটা তার ডিজিটাল সম্পদ। তাই এর উত্তরসূরি রেখে যাওয়া সম্ভব। মানুষ চলে যাওয়ার পর তাঁর ফেসবুক কে দেখভাল করবে, তা আগেই ফেসবুককে জানিয়ে যাওয়া যায়। ফেসবুক সেটিংস থেকে সিকিউরিটিতে গিয়ে লিগাসি কন্টাক্ট নির্বাচন করা যাবে। সেখান থেকে একজনকে উত্তরসূরি নির্বাচন করে তাঁকে অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া যাবে।

৬. ফেসবুকে যখন আপনি কোনো ছবি বা ভিডিও আপলোড করেন, তখন ফেসবুক তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে রিসাইজ করে নেয়। এতে জায়গা বাঁচে ও ডেটা কম খরচ হয়। কিন্তু চাইলে ছবি বা ভিডিও হাই ডেফিনিশন বা এইচডি হিসেবে আপলোড করা যাবে। এ জন্য এইচডি ফিচারটি চালু করতে হবে। সেটিংসে গিয়ে ভিডিও ও ফটোজের জন্য এইচডি অপশনটি চালু করে নিতে পারেন।

৭. ফেসবুক ব্যবহারকারীকে অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের যন্ত্র যেমন ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, ট্যাব, স্মার্টফোন প্রভৃতি থেকে ফেসবুকে ঢুকতে হয়। আবার একেকবার একেক রকম ব্রাউজার ব্যবহার করতে হয়। সেটিংসে গিয়ে সিকিউরিটিতে ঢুকে হোয়্যার ইউ আর লগড ইন দেখুন। সম্প্রতি কোথা থেকে ফেসবুকে লগইন করা হয়েছে, তা দেখতে পাবেন। এখান থেকে ডিভাইসের নাম ও সম্ভাব্য অবস্থানও দেখতে পাবেন। আপনার অ্যাকাউন্টে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে কেউ ঢুকেছে কি না, তা-ও দেখতে পাবেন। সন্দেহজনক কিছু দেখলে দ্রুত তা মুছে দিন এবং ফেসবুকের পাসওয়ার্ড বদলে জটিল পাসওয়ার্ড দিন।

৮. যারা নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহার করেন, তারা বিভিন্ন পেজ বা অ্যাকাউন্ট ফলো বা অনুসরণ করেন। এর মধ্যে কিছু কিছু সাইট বেশি গুরুত্বপূর্ণ। যেসব পেজ বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন এবং সেগুলোর হালনাগাদ বিষয় পেতে চান, তা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নির্বাচন করে দিতে পারেন। নিউজ ফিডে এই বিষয়গুলো আগে দেখাবে ফেসবুক। সেটিংসে গিয়ে নিউজ ফিড প্রেফারেন্স পাবেন। সেখান থেকে ‘প্রায়োরিটাইজ হু টু সি ফার্স্ট’ থেকে আপনার অগ্রাধিকার তালিকা ঠিক করে দিন।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

bnbd-ads
MA-in-English
bnbd-ads