সরকারকে ‘আইনই সংশোধন’ করতে বলছে জিপি-রবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৭ জুলাই ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০৬:৫৩

সরকারকে ‘আইনই সংশোধন’ করতে বলছে জিপি-রবি

বকেয়া অর্থ নিয়ে প্রচলিত আইনে আর কোনো দরকষাকষির সুযোগ নেই তাই টেলিযোগাযোগ আইনই সংশোধন করতে বলছে দেশের দুই শীর্ষ মোবাইলফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ও রবি।

প্রায় ১৪ হাজার কোটি টাকা বকেয়া পরিশোধ না করায় সরকারের নির্দেশে এই দুই অপারেটরের কিছু ব্যান্ডউইথ ব্লক করেছে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি)। 

রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জহিরুল হক বলেন, ‘জিপি-রবির বকেয়া অর্থ নিয়ে প্রচলিত আইনে আর কোনো দরকষাকষির সুযোগ নেই। কিন্তু যেহেতু জিপি দরকষাকষি করতে চায় তাই তারা সরকারকে টেলিযোগাযোগ আইন সংশোধন করতে বলছে।

হঠাৎ ব্যান্ডউইথ ব্লক করায় লক্ষ লক্ষ ব্যবহারকারীরা তাদের সেবা পেতে সমস্যা হচ্ছে। বিটিআরসি গ্রাহকদের দুর্ভোগের দিকে লক্ষ্য রাখছে বলে জানান মোহাম্মদ জহিরুল হক।

এর আগে জিপি সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছিলো যে বিটিআরসি তাদের ব্যান্ডউইথ আংশিকভাবে বন্ধ করে দেওয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা ‘অযৌক্তিক ও বেআইনি’।

উল্লেখ্য, গত ২ এপ্রিল গ্রামীণফোনকে একটি নোটিশের মাধ্যমে বিটিআরসিকে ৮ হাজার ৪৯৪ কোটি ১ লাখ টাকা আর জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে ৪ হাজার ৮৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকা প্রদান করার নির্দেশ দেয় বিটিআরসি। বিটিআরসির নিয়োগ করা একটি অডিট ফার্ম ১৯৯৭ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সময়ে এই বকেয়া তৈরি হয়েছে বলে প্রতিবেদন দেয়।

একই সঙ্গে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের কাছে অডিটের মাধ্যমে গত ১৯ বছরে ৮৬৭ কোটি ২৪ লাখ টাকা বকেয়া প্রাপ্তি হয়েছে বলে দাবি করে সংস্থাটি। তবে রবির দাবি, হিসাব নিরীক্ষকরা যেসব কারণে বকেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন, তা এখনও বিচারাধীন রয়েছে।

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ