এরশাদের আসনে মুখোমুখি দুই পুত্র, বিদিশার স্ট্যাটাসে তোলপাড়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৮ আগস্ট ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৪:৩৭ আপডেট: ০৬:২০

এরশাদের আসনে মুখোমুখি দুই পুত্র, বিদিশার স্ট্যাটাসে তোলপাড়

জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শুরু হওয়া রংপুর-৩ আসনে প্রার্থী হতে তাঁর ছোট ছেলে এরিক এরশাদকে দিয়ে দলের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করানো হয়েছে। এ নিয়ে জাপার যুগ্ম মহাসচিব ও রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির দলটির নেতাকর্মীদের সমালোচনার মুখে পড়েছেন। 

এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন এরিকের মা ও এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশা এরশাদ। 

বিদিশা তার স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের হাতে গড়া দল এখন সার্কাসে পরিণত হয়েছে। দলীয় চেয়ারম্যানের একমাত্র উত্তরসূরী প্রতিবন্ধী সন্তানকেও এখন রাজনৈতিক কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। জাতির কাছে আমার প্রশ্ন, যারা এই দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তাদের বিবেক বুদ্ধি কি সব লোপ পেয়ে গেছে?’

এদিকে এরশাদপত্নী ও বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশন এরশাদ বড় ছেলে রাহাগির আল মাহি সাদকে রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচনে প্রার্থী করতে চান। এরশাদের মৃত্যুর পর বাবার আসনে দুই ভাইয়ের সম্ভাব্য এই মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে জাপার রাজনীতিতে উৎকণ্ঠা বিরাজ করতে শুরু করেছে। 


গত ১৪ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন জাপার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এরপরই রংপুর-৩ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে ১ সেপ্টেম্বর উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে এরশাদের ঘাঁটি খ্যাত ওই আসনে উপনির্বাচনের ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। 

উপনির্বাচনকে সামনে রেখে এরশাদের দুই পুত্রসহ জাপার ৮ নেতা মনোনয়ন পেতে তোড়জোর শুরু করেছেন বলে সূত্রের দেয়া তথ্যে জানা গেছে। 

উল্লেখ্য, এরশাদ ১৯৮২ সালে সামরিক শাসন জারি করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করার দুই বছর পর রওশন এরশাদের পুত্র সাদের জন্ম হয় বঙ্গভবনে। ১৯৯৮ সালে বিদিশাকে বিয়ে করেন এরশাদ। বিয়ের দুই বছর পর বিদিশার গর্ভে এরিকের জন্ম হয়। 

ব্রেকিংনিউজ/এমআর