bnbd-ads
bnbd-ads

ভারতীয় ক্লাবের বিপক্ষে আবাহনীর দুর্দান্ত জয়

স্পোর্টস ডেস্ক
১৫ মে ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ১০:৪০

ভারতীয় ক্লাবের বিপক্ষে আবাহনীর দুর্দান্ত জয়

হারলেই আরও একবার এএফসি কাপের গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হবে। আর জিতলে দ্বিতীয় রাউন্ডের সম্ভাবনা বেঁচে থাকবে। এমন কঠিন সমীকরণকে সামনে রেখে চেন্নাইয়ান এফসির মুখোমুখি হয়েছিল আবাহনী লিমিটেড। হাইতিয়ান স্ট্রাইকার বেলফোর্ট আফগান ডিফেন্ডার মাসি সাইগানি ও মামুনুল ইসলামের জাদুকরী চোখ চোখ ধাঁধানো ৩-২ এ দারুণ জায় পায় ঢাকার ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি।

বুধবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে গোল, পাল্টা গোলের ম্যাচে ভারতের চেন্নাইয়ান এফসিকে ৩-২ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার স্বপ্ন জিইয়ে রেখেছে বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়নরা। 

খেলার সপ্তম মিনিটেই ফরোয়ার্ড সি কে বিনীথ গোলে এগিয়ে যায় চেন্নাইয়ান। গোল খেয়ে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় আবাহনী। পুরো ম্যাচটা নিজে হাতে টেনে নিয়ে যান আবাহনীর হাইতিয়ান ফুটবলার কেভিন বলফোর্ট। একের পর এক আক্রমণে চেন্নাইয়ানকে নাজেহাল করে সমতায় ফিরতে অবশ্য আকাশি-নীল জার্সিধারীদের অপেক্ষা করতে হয় ম্যাচের ৬৪ মিনিট পর্যন্ত। বেলফোর্টই গোল করেন।

আফগান ডিফেন্ডার মাসি সাইগানির এরিয়াল থ্রু বক্সের মধ্যে বুকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলটি করেন বেলফোর্ট। ৫ মিনিট পরেই অবিশ্বাস্য ফ্রিকিকে আবাহনীকে এগিয়ে নেন মাসি। বাঁ প্রান্তে বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া ফ্রিকিকটি চেন্নাইয়ান ক্লাবের গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে ঢুকে যায় গোলে। ২-১ গোলে এগিয়ে গিয়ে আবাহনী হয়তো একটু গা ছাড়া দিয়ে থাকতে পারে। সে সুযোগে সমতায় ফেরে চেন্নাই খেলার ৭৪ মিনিটে। গোলটি করেন ইসাক। 

শেষ পর্যন্ত হৃদয় ভাঙেনি আকাশী-নীল সমর্থকদের। ম্যাচের একদম শেষ সময়ের দুই মিনিট আগে স্বস্তির জয়সূচক গোলটি এনে দেন পুরনো যোদ্ধা মামুনুল হক। ৮৮ মিনিটে তার ডানপায়ের শটটিই নিশ্চিত করে দেয় আবাহনীর গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পয়েন্ট।

এই জয়ে গ্রুপ ‘ই’ থেকে সমান ৭ পয়েন্ট হল আবাহনী ও চেন্নাইয়িনের। তবে এক গোল বেশি নিয়ে টেবিলের শীর্ষে চেন্নাইয়িন। চার পয়েন্টে টেবিলের তিনে ভারত চ্যাম্পিয়ন মির্নাভা পাঞ্জাব। ২ পয়েন্টে সবার তলানিতে নেপালি ক্লাব মানাং মার্সিয়াংদি।

ব্রেকিংনিউজ/এসএম