৪ উইকেট হারিয়ে চাপে কিউইরা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৯ জুন ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ১০:৩৯ আপডেট: ১০:৪০

৪ উইকেট হারিয়ে চাপে কিউইরা

দক্ষিণ আফ্রিকার দেয়া ২৪২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায় নিউজিল্যান্ড। দলীয় ১২ রানের মাথায় কলিন মুনরোকে (৯) সাজঘরে ফেরার কাগিসো রাবাদা। নিজের বলে নিজেই মুনরোকে তালুবন্দী করেন তিনি। 
 
অবশ্য কিউইরা ধাক্কাটা সামাল দেয় আরেক ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটে। দু’জনের ৬০ রানের জুটি ভাঙেন ফেলুকাওয়াও। হিট উইকেটে দেয়াল হয়ে থাকা গাপটিলকে (৩৫) ফেরান এই প্রোটিয়া তারকা। 
 
এর পরপরই ক্রিস মরিসের বলে রস টেইলরকে (১) তালুবন্দী করেন উইকেটরক্ষক কুইন্টন ডি কক। একইভাবে টম লাথামকেও (১) সাজঘরের পথ দেখান মরিস।  
 
এই রিপোর্ট লেখা পযর্ন্ত ২০.৩ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ৯২ সংগ্রহ করেছে নিউজিল্যান্ড। ব্যাটিংয়ে আছেন উইলিয়ামসন (৩৬) ও জিমি নিশাম (৬)।
 
এর আগে বার্মিহামের এজবাস্টনে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নিউজিল্যান্ডকে ২৪২ রানের টার্গেট দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বৃষ্টির কারণে ৪৯ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৪১ সংগ্রহ করে ফাফ ডু প্লেসিসের দল।
 
বিশ্বকাপের ২৫তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ড। আসরে প্রোটিয়াদের এটি ষষ্ঠ ও কিউইদের পঞ্চম ম্যাচ।
 
বুধবার (১৯ জুন), শুরুর আগে বৃষ্টির বাধার মুখে পড়ে ম্যাচটি। নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলেও ভেজা আউটফিল্ডের কারণে টসে বিলম্ব হয়। অবশেষে টসে জিতে ফিল্ডিং বেছে নেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। 
 
ব্যাটিংয়ে নেমে অবশ্য শুরুটা ভালো হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার।দলীয় ৯ ও ব্যক্তিগত ৫ রানে ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হন ওপেনার কুইন্টন ডি কক। পরে ব্যক্তিগত ২৩ রান করে লকি ফার্গুসনের বলে বোল্ড হয়ে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক ডু প্লেসিস।
 
তবে হাশিম আমলার ফিফটিতে দলীয় শতকের দেখা পায় প্রোটিয়ারা। মিচেল স্যান্টনারের বলে ৫৫ রান করে বোল্ড হন এই তারকা ব্যাটসম্যান। ৮৩ বলে ৪টি বাউন্ডারির সাহায্যে নিজের ইনিংস সাজান তিনি। 
 
এদিন ২৪ রান করে বিরাট কোহলির পরই ইনিংসের হিসেবে ওয়ানডেতে দ্রুততম ৮ হাজার রানের মালিক হন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান আমলা। 
 
কিউইদের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে নামার আগে আমলার রান ছিল ৭৯৭৬ রান। ৮ হাজার রানের মাইলফলক গড়তে হ্যাশের লেগেছে ১৭৯ ম্যাচ ও ১৭৬ ইনিংস। কোহলির লেগেছে ১৮৩ ম্যাচ ও ১৭৫ ইনিংস।  
 
আমলার বিদায়ের পরপরই দলীয় ১৩৬ রানে এইডেন মার্করামকে (৩৮) হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে রসি ফন ডার ডুসেনের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে এগিয়ে চলে তারা। ডেভিড মিলারকে নিয়ে ৭২ রানের জুটি গড়েন তিনি। ৩৭ বলে ৩৬ রান করে মিলার ফেরেন ফার্গুসনের বলে। এর পররপই ফিরেন আন্দ্রে ফেলুকাওয়াও (০)। ক্রিস মরিসকে (৬) নিয়ে দলকে লড়াকু পুঁজি এনে দেন ডুসেন। এই বাঁহাতি প্রোটিয়া অলরাউন্ডার ৬৪ বলে অপরাজিত ছিলেন ৬৭ রানে। ডুসেনের ইনিংসটি সাজানো হয়েছে ২ চার ও ৩ ছক্কায়। 
 
কিউইদের হয়ে ১০ ওভারে ৫৯ রান দিয়ে ৩ ‍উইকেট নিয়েছেন ফার্গুসন। একটি করে উইকেট শিকার করেছেন বোল্ট, কলিন ডি গ্রান্ডহোম ও স্যান্টনার। 
 
ব্রেকিংনিউজ/এএফকে