শিরোনাম:

বিশ্বে সবচেয়ে বেশি বেতন পান তিনি

নিউজ ডেস্ক
৭ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 7:59
 বিশ্বে সবচেয়ে বেশি বেতন পান তিনি

টাকা কারো বেশি হয় না। বিল গেটসকেও যদি জিজ্ঞেস করা হয় যে আপনার আর কী করার ইচ্ছে আছে? হয়তো তিনি মাইক্রোসফটের মত আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠান করতে চাইবেন। এতো গেলো উদ্যোক্তাদের কথা। চাকরি করে টাকার মালিক হওয়াদের না জানি আরও কত শখ! থাক ওসব কথা। চলুন জেনেনিই এমন চাকুরে কে যে পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বেতন পান।

বিশ্বের বড় বড় টেকনোলজি কোম্পানি, ব্যাংকিং সেক্টর উপমহাদেশের সন্তানরা গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে আমাদের নাম উজ্জ্বল করেছে এমন সংখ্যা অনেক। এই ধরুন গুগলের সুন্দর পিচাই, মাইক্রোসফট-এর সিইও সত্য নাদেলার এছাড়া ইউটিউবের সহপ্রতিষ্ঠাতার নাম উল্লেখযোগ্য।

আর এই তালিকায় যুক্ত হতে চলেছে নয়া এক নাম তিনি ভারতের নিকেশ অরোরা। সাইবার সিকিওরিটি কোম্পানি পালো অল্টো নেটওয়ার্কের সিইও হিসেবে নিযুক্ত হন নিকেশ। আর এই পদে আসীন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তিনি বিশ্বের সবথেকে বেশি বেতন পাওয়া এগজিকিউটিভ হয়ে গেলেন।

নিকেশ অরোরা পালো অল্টো নেটওয়ার্ক কোম্পানিতে বার্ষিক প্যাকেজ ১২৮ মিলিয়ন ডলার। যা ভারতীয় মুদ্রায় ৮৫৮ কোটি টাকা। আর সেই হিসেবেই নিকেশের একদিনের বেতন ২.৫ কোটি টাকা।

সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, নিকেশ অরোরার আগে অ্যাপেল কোম্পানির সিইও টিম কুক বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বেতন পাওয়া সিইও ছিলেন। তার বার্ষিক বেতন ছিল ১১৯ মিলিয়ন ডলার।

৬জুন থেকে নিকেশ পালো অল্টোর সিইও পদের দায়িত্ব নিলেন। ৫০ বছর বয়সী নিকেশ ভারতের বিএইচইউ থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেন। ১৯৮৯ সালে আইআইটি বারাণসী থেকে ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে গ্র্যাজুয়েশন করে তিনি চাকরিতে যোগ দেন। তবে এঅই চাকরি ছেড়ে তিনি আমেরিকা চলে যান এবং সেখানে বোস্টন কলেজ অব নর্থ ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি থেকে বিজনেস ম্যানেজমেন্ট নিয়ে পড়াশোনা করেন। এরপর বহু জায়গাতে চাকরি করেছেন তিনি। ২০০৪ সালে তিনি যোগ দেন গুগলে। ২০১৩ সালে তিনি গুগলে সবথেকে বেশি বেতন পাওয়া কর্মী ছিলেন। সেখানে তার বার্ষিক বেতন ছিল প্রায় ৩৪৫ কোটি টাকা।

২০১৪ সালে তিনি গুগলের চাকরি ছেড়ে তিনি গ্লোবাল ইন্টারনেট ইনভেস্টমেন্ট বিজনেস হেড হিসেবে কাজ শুরু করেন। এক বছর পরে তিনি সিইও-র পদে আসীন হন সফট ব্যাংক গ্রুপ, এই একই সংস্থায়। আর সেখান থেকেই এবার তিনি পালো অল্টো নেটওয়ার্কের সিইও হিসেবে যোগদান করলেন।

ব্রেকিংনিউজ/এইচএ

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2