শিরোনাম:

মুগদায় এক ব্যক্তিকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্ত্রী-সন্তানসহ আটক ৫

মেডিকেল করেসপন্ডেন্ট
২১ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 2:27
মুগদায় এক ব্যক্তিকে শ্বাসরোধে হত্যা, স্ত্রী-সন্তানসহ আটক ৫

রাজধানীর মুগদা থানার মানিকনগরে রফিকুল ইসলাম (৪৮) নামের এক ব্যক্তিকে শ্বাসরোধে হত্যার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তার স্বজনরা। এ ঘটনায় মৃতের স্ত্রী-সন্তানসহ পাঁচ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (২০ জুন) রাত ১২টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। রাত ১টার দিকে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বৃহস্পতিবার (২১ জুন) সকালে মর্গে পাঠায়।

মৃত রফিকুল বাগেরহাট সদর উপজেলার বেসরগাতি গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে। বর্তমানে স্ত্রী-সন্তানসহ মুগদা উত্তর মানিকনগরের জয়নাল মিয়ার টিনসেড বাসায় ভাড়া থাকতো।

মুগদা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রহিদুল ইসলাম জানান, মৃত রফিকুল টিটিপাড়া এলাকায় শরবত বিক্রি করতো। স্ত্রী বিথী আক্তার ও দুই ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে মুগদার বাসায় ভাড়া থাকতো। দ্বীর্ঘ দিন ধরে তাদের পারিবারিক কলোহ লেগেই থাকতো। এর জের ধরে গত রাতে স্ত্রী বিথী তার বড় ছেলে রাব্বী (১৯) এবং তার তিন বন্ধুকে বাসায় ডেকে নিয়ে এসে রফিকুলকে শ্বাষরোধে হত্যা করে। পরে মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে ছেলে রাব্বী ও তিন বন্ধুকে ঘরের ভিতরে রেখে বাইরে থেকে তালা মেরে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকে। পরে প্রতিবেশীরা টের পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রফিকুলের মৃতদেহ উদ্ধার করে এবং স্ত্রী বিথী (৪০) ও ছেলে রাব্বী (১৯) সহ তার তিন বন্ধুকে আটক করে। 

মৃত রফিকুলের খালাত ভাই মোস্তাক ফকির বাদল জানায়, রফিকুল দুই বছর ধরে তার স্ত্রীকে নিয়ে টিটি পাড়ায় শরবত বিক্রি করতো। এর আগে রফিকুল কসাইয়ের কাজ করতো। বড় ছেলে রাব্বী দুই তিন বছর আগে এলাকায় হত্যা মামলা আসামি।

তিনি আরও জানায়, তাদের পরিবারে সব সময় ঝগড়া লেগে থাকতো। গত রাতে রফিকুলের স্ত্রী ও ছেলে রাব্বীসহ তার তিন বন্ধু রফিকুলকে হত্যা করে।  এ সময় তাদের আর এক সন্তান জিদনী (১৩) কে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

ব্রেকিংনিউজ/ এইচ/ এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2