শিরোনাম:

রাজশাহীতে প্রতীক পেয়েই ভোটের মাঠে প্রার্থীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১০ জুলাই ২০১৮, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: 4:20
রাজশাহীতে প্রতীক পেয়েই ভোটের মাঠে প্রার্থীরা

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১০ জুলাই) সকাল ৯টায় থেকে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক দেয়া হয়। উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে নিজ নিজ প্রতিক নিয়ে ভোটের মাঠে নেমে পড়েন প্রার্থীরা।

নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করে ভোটের প্রচার শুরু করেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। আর শাহমখদুম (রঃ) মাজার জিয়ারত করে প্রচার শুরু করেন বিএনপির মনোনিত প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

রিটানিং অফিসার আমিরুল ইসলাম জানান, প্রথমে সংরক্ষিত আসনের নারী প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক দেয়া হয়। মেয়র পদে ও এরপর সাধারণ কাউন্সিলর পদের প্রার্থীদের প্রতীক দেয়া হয়। যারা একই প্রতীক চেয়েছেন তাদের লটারির মাধ্যমে প্রতীক দেয়া হয়েছে।

মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে নৌকা, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ধানের শীষ, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (মতিন) হাবিবুর রহমান হাবিবকে কাঁঠাল, ইসলামী আন্দোলনের সরিফুল ইসলাম হাতপাখা, হাতি প্রতীক পেয়েছেন স্বতন্ত্র মুরাদ মোর্শেদ। 

প্রতীক বরাদ্দের পর দলীয় প্রার্থীরা নগরীতে পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন টাঙ্গানোসহ মাইকে প্রচার শুরু করেন। বিশেষ করে দলীয় প্রার্থীদের প্রতীক নির্ধারণ থাকায় তারা আগে থেকে ছাপার কাজ সেরে রাখেন। সোমবার দিবাগত রাত ১২টার পর থেকেই অনেকেই প্রচারপত্র টাঙ্গানো শুরু করেন।



মঙ্গলবার দুপুরে আওয়ামী লীগের মনোনিত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন। ১৪ দফার ইশতেহারে রাজশাহীতে এক লাখ লোকের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থার অঙ্গিকারসহ শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবাকে গুরুত্ব দিয়ে মেগা সিটি গড়ে তুড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

এ সময় লিটন বলেন, রাজশাহীকে উত্তরাঞ্চলের তথা সমগ্র দেশের শান্তি ও সম্প্রীতি, শিক্ষা ও সাংস্কৃতি, বেকারমুক্ত কর্মমুখরতার উজ্জীবনে উন্নত ও সমৃদ্ধ আধুনিক মহানগরী হিসেবে গড়ে তুলবো; এই আমার অঙ্গীকার।

মেয়র প্রার্থী লিটন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ভাষাসৈনিক মোশাররফ হোসেন আখুঞ্জি, আবুল হোসেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি সাইদুর রহমান খান ও আবদুল খালেক, রাবি শিক্ষক সাব্বির সাত্তার তপু, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ ১৪ দলের নেতৃবৃন্দ।

অপরদিকে দুপুরে শাহমখদুম (রঃ) মাজার জিয়ারত করে নির্বাচনী প্রচারে নামেন নৌকার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মনোনিত মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, রাজশাহীর মানুষ অরজগতা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে নগরবাসী শান্তির প্রতীক ধানের শীষে ভোট দিবে এবং বিপুল ভোটে তাকে বিজয়ী করবেন।

এ সময় তার সঙ্গে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন, নগর যুবদলের সভাপতি আবুল কালাম আজদ সুইট, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল আলম সমাপ্তসহ বিএনপির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২১৭ জন প্রার্থী। এর মধ্যে মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলরে ১৬০ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৫২ জন।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাধারণ ওয়ার্ড ৩০টি ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড ১০টি। মোট ভোট কেন্দ্র ১৩৮টি। ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ১৮ হাজার ১৩৮ জন। এর পুরুষ ভোটার এক লাখ ৫৬ হাজার ৮৫ জন ও নারী ভোটার এক লাখ ৬২ হাজার ৫৩ জন। আগামী ৩০ জুলাই ভোট গ্রহন করা হবে।

ব্রেকিংনিউজ/ এসডিএম/ এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2