শিরোনাম:

রাসিক নির্বাচন নিয়ে চিন্তিত বিএনপি’র বুলবুল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রাজশাহী
১১ জুলাই ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 6:01 আপডেট: 6:29
রাসিক নির্বাচন নিয়ে চিন্তিত বিএনপি’র বুলবুল

প্রচার প্রচারণার দ্বিতীয় দিনে বুধবার (১১ জুলাই) বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল নগরের ১০ নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত তিনি ওই ওয়ার্ডের কাশিয়াডাঙ্গা, আদুবুড়ি, কাঁঠালবাড়িয়া, সাহজীপাড়া, হারুপুর, সায়েরগাছা, রায়পাড়া, পূর্বপাড়া, গোলজারবাগ, পুরাপাড়া, মুন্সিপাড়া, হড়গ্রাম ও পীরসাহেব পাড়ায় গণসংযোগ করেন। এ সময় বাড়ি বাড়ি যেয়ে বুলবুল ভোটারদের কাছে দেয়া ও ধানের শীষে ভোট চান।

গণসংযোগকালে মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল সাংবাদিকদের বলেন, ‘সরকার দলীয় মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে তার পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন টাঙাতে বাধা দেয়া হচ্ছে। কোথাও কোথাও টাঙানো পোস্টার ছিড়ে নষ্ট করে ফেলা হয়। এছাড়াও রাতারাতি সব জায়গা দখল করে সরকার দলীয় প্রার্থীর পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন টাঙানো হয়েছে। তার পোস্টার লাগানোর কোনো জায়গা রাখা হয়নি।’

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে বুলবুল বলেন, ‘প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ধানের শীষে ভোট দিতে নিষেধ করাসহ ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য তার সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখানোসহ হয়রানি করা হচ্ছে। নৌকায় ভোট দেয়ার জন্য ভোটারদের চাপ প্রয়োগ করা শুরু হয়েছে। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে প্রায় ৭০ হাজার ভোটে তিনি জয়লাভ করবেন’ বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

গণসংযোগকালে বুলবুলের সঙ্গে ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এবং সাবেক মেয়র ও সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিনু, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন, রাজপাড়া থানা বিএনপির সভাপতি শওকত আলী, সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন, ১নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি হাজী শহীদ আলম, সাধারণ সম্পাদক শামীম আহম্মেদ, পবা উপজেলা বিএনপি নেতা রিয়াজুল ইসলাম, মহানগর যুবদলের সাবেক সভাপতি ওয়ালিউল হক রানা, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান রিটন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল আলম সমাপ্ত, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হাসনাইন হিকোল, মহানগর যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বাবলু, মহানগর ছাত্রদলে সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রবি প্রমুখ।

এদিকে হার নিশ্চিত জেনে শুরুতেই অপপ্রচার শুরু করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী বলে মন্তব্য আ.লীগের মেয়র প্রার্থী ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। প্রচার শুরুর দ্বিতীয় দিনে বুধবার সকালে নগরের ১২ নং ওয়ার্ডের সাহেববাজার আরডিএ মার্কেটে গণসংযোগকালে বিএনপির প্রার্থীর অভিযোগের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন খায়রুজ্জামান লিটন।

বিএনপির প্রার্থীর অভিযোগের ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘আওয়ামী লীগ বড় ও সুসংগঠিত দল। নির্বাচন নিয়ে সব পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি তাদের আগে থেকেই ছিল। তাই প্রচার শুরুর সাথে সাথেই নগরজুড়ে পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন টাঙাতে দলের নেতাকর্মীরা নেমে পড়েন। এক রাতেই সব এলাকায় তার পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন টাঙানো হয়েছে।’

ব্রেকিংনিউজ/ এসডি/এসএএফ

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2