শিরোনাম:

কোস্ট গার্ড সুনামের সঙ্গে কাজ করছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১১ জুলাই ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 8:31 আপডেট: 8:32
কোস্ট গার্ড সুনামের সঙ্গে কাজ করছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ছবি: ব্রেকিংনিউজ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘কোস্ট গার্ড বাহিনী বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। যা খুবই প্রশংসনীয়। ব্লু-ইকোনমি প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম এটার প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বআরোপ করে সমুদ্রসীমার দাবি করেছিলেন। আজকে কোস্ট গার্ডরা সমুদ্র সীমানায় মাদক নিয়ন্ত্রণ থেকে শুরু করে চোরাচালান নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধে সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছে। যা ব্লু-ইকোনমির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’ 

বুধবার (১১ জুলাই) সকাল ১১টায় রাজধানীর গুলশান ২-এ হোটেল ওয়েস্টিনে এশিয়ার ১৮টি দেশের কোস্টগার্ডের সমন্বয়ে দু’দিনব্যাপী ওয়ার্কিং লেভেল মিটিংয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সন্ত্রাস, মাদক দ্রব্য, মানবপাচার, চোরাচালান ও অবৈধ মৎস্য আহরণ প্রতিরোধে সকল দেশের সঙ্গে একত্রে কাজ করে ভবিষ্যতে আরও সুমান অর্জন করবে সেই প্রত্যাশা সবার।’ 

ব্লু-ইকোনোমির বিষয়টি মাথায় রেখে নিরাপদ মেরিটাইম পরিবেশের জন্য সব দেশকে একসঙ্গে কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের মহাপরিচালক রিয়ার অ্যাডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী বলেন, ‘কোস্ট গার্ডের এশিয়া মহাদেশের প্রতিনিধিদের নিয়ে এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিভিন্ন দেশের সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকাতে উদ্ধার তৎপরতার পাশাপাশি পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধ ও অবৈধ কর্মকাণ্ড নিয়ন্তণের পাশাপাশি সার্বিক উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।’

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের আয়োজনে হেড অব এশিয়ান কোস্ট গার্ড এজেন্সির (এইচএসিজিএএম) ১৪তম এ সভায় অস্ট্রেলিয়া, বাহরাইন, হংকং, চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, শ্রীলংকা, থাইল্যান্ড, তুরস্ক এবং ভিয়েতনামের কোস্ট গার্ড, মেরিটাইম এজেন্সি এবং RECAAP- ISC (The Regional Cooperation Agreement on Combating Piracy and armed robbery against ships in Asia) এর ৪১ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন।

ব্রেকিংনিউজ/টিটি/এমআর

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2