শিরোনাম:

ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্কে নষ্টের উদ্দেশ্য ছিলো কার্লাইলের: ভারত

নিউজ ডেস্ক
১৩ জুলাই ২০১৮, শুক্রবার
প্রকাশিত: 8:52 আপডেট: 9:08
ভারত-বাংলাদেশের সম্পর্কে নষ্টের উদ্দেশ্য ছিলো কার্লাইলের: ভারত

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী লর্ড আলেকজান্ডার কার্লাইল ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক নষ্ট করতে চেয়েছিল বলে দাবি করেছে ভারত। 

উল্লেখ্য, বুধবার (১১ জুলাই) গভীর রাতে দিল্লি বিমানবন্দরে এসে পৌঁছান কার্লাইল। তখন ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা তাকে জানান যে, ভারত সরকার তার ভিসা প্রত্যাহার করেছে। এরপর তাকে দিল্লীর বিমানবন্দর থেকেই লন্ডনের ফিরতি ফ্লাইটে তুলে দেয়া হয়। কার্লাইল বাংলাদেশে এসে সংবাদ সম্মেলন করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার তার ভিসা দেয়নি। এজন্য তিনি ১৩ জুলাই (আজ) দিল্লির ফরেন করেসপন্ডেন্টস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করতে চেয়েছিল।

কার্লাইল ফেরত পাঠানোর পরপরই ভারত তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছিল, ‘উপযুক্ত ভিসা নিয়ে না আসার’ লর্ড কার্লাইলকে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এর একদিন পরই সূর পাল্টালো ভারত।

বিষয়টি নিয়ে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া দিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাভিশ কুমার বলেছেন, ‘তার উদ্দেশ্য সন্দেহজনক। তিনি ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে কিছু সমস্যা সৃষ্টি করতে চেয়েছিলেন। এবং ভারত ও বাংলাদেশের বিরোধী দলের (বিএনপি) মধ্যেও ভুল বোঝাবুঝি তৈরি করতে চেয়েছিলেন।’

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, ‘তার উদ্দেশ্য কী ছিল তা এখন খুবই স্পষ্ট, যখন আপনি তার বিবৃতি পড়বেন, যেটা তিনি এখানে দিতে চেয়েছিলেন। তিনি বিজনেস ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন। এটা কোন ধরনের বিজনসে?’

কার্লাইল এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি বলেন, ইন্ডিয়া টুডেকে বলেছেন, ‘এটা পুরোপুরি অসত্য ও মিথ্যা। একজন ব্রিটিশ কিউসি ও হাউস অব লর্ডসের সদস্যকে ভারতে প্রবেশ করতে না দেয়ায় ভারত সরকারের লজ্জিত হওয়া উচিত।’

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ 

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2