শিরোনাম:

রাজনীতির মাঠেও লম্বা ইনিংস খেলতে চান ‘কিং খান’

নাজিম উদ্দিন খান
৩০ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 2:51 আপডেট: 2:36
রাজনীতির মাঠেও লম্বা ইনিংস খেলতে চান ‘কিং খান’

জীবনের নতুন এক ইনিংস শুরু করছেন ক্রিকেটের মাঠ থেকে রাজনীতির মাঠে আসা পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান। আর এই ইনিংসটি যে তিনি বেশ বড় করতে চান তার আভাস কিন্তু পাওয়া যাচ্ছে।

তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) প্রধান ইমরান বলেছিলেন, নয়া পাকিস্তান গড়বেন। আর সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে একের পর এক পদক্ষেপ নিচ্ছেন পাকিস্তানের ২২তম এ প্রধানমন্ত্রী। 

ইতিমধ্যে সরকারি বাসভবন ছেড়েছেন। সদ্য ঘোষণা করেছেন, তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যরা কেউ প্রথম শ্রেণির বিমান ভাড়া পাবেন না। ক্ষমতায় এসেই দেশের সরকারি সংবাদমাধ্যম পাকিস্তান টিভি এবং রেডিও পাকিস্তানকে পুরোপুরি সম্পাদকীয় স্বাধীনতা দিয়েছে ইমরান খান সরকার।

নওয়াজ শরিফের সরকারও এমন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কাজের কাজ হয়নি। তবে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ফাওয়াদ হোসেন চৌধুরি জানিয়েছেন, পাকিস্তান টিভির উপরে রাজনৈতিক সেন্সরশিপ বন্ধ করতে চান ইমরান খান। পিটিভি ও রেডিও পাকিস্তানকে সম্পাদকীয় স্বাধীনতা দিতে আগামী তিন মাসে তার মন্ত্রণালয় পদক্ষেপ নিতে চলেছে। ইতোমধ্যেই স্পষ্ট নির্দেশ দিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মন্ত্রীর মতে, এই প্রতিষ্ঠানগুলিকে এখন থেকে আর সরকারের ব্যক্তিগত সম্পত্তি হিসেবে দেখা হবে না। পাকিস্তানের ইতিবাচক ছবি তুলে ধরবে তারা।

এরপর দেখালেন আরেক চমক। এক ধাক্কায় ডিজেলের দাম লিটার প্রতি ১৭ টাকা কমিয়েছে তার সরকার।

পাকিস্তানের ফেডারেল পেট্রলিয়ামমন্ত্রী গুলাম সারওয়ার খান এ ঘোষণায় জানান, ভবিষ্যতে ডিজেলের দাম আরও ১৭ টাকা কমানো হবে।

বর্তমানে পাকিস্তানে পেট্রলের ৯৫ টাকা লিটার, যা ডিজেলের চেয়ে ১৮ টাকা বেশি। শিগগিরই ডিজেলের দাম আরও কমিয়ে পেট্রলের দামের সমান করা হবে।

পাকিস্তানে প্রতি লিটার ডিজেলের দাম ছিল ১৩০ টাকা। ১৭ টাকা কমানোয় তা দাঁড়িয়েছে ১১৩ টাকায়। দ্রুত আরও ১৮ টাকা কমিয়ে ডিজেলের দাম আনা হবে ৯৫ টাকায়।

সুতরাং বলাই বাহুল্য ২২ গজের অসম সাহসী ক্যাপ্টেন রাজনীতির ময়দানেও লম্বা ইনিংস খেলতে চান। 

ইমরান খানের সংক্ষিপ্ত জীবনী:

বিশ্ব ক্রিকেটের কিংবদন্তি অলরাউন্ডারদের একজন ইমরান খান। তাঁর পুরো নাম ইমরান খান নিয়াজি।  ১৯৫২ সালের ৫ অক্টোবর লাহোরে জন্ম। এক সিভিল ইঞ্জিনিয়ার ইক্রামূল্লা খান নিয়াজি এবং শৌকত খানুমের ছেলে তিন। লাজুক এই ছেলেটি বড় হতে থাকে তার চার বোনের সাথে। লাহোরের এচিসন কলেজ পড়াশুনা৷ পরে অক্সফোর্ডে থেকে স্নাতক হন ১৯৭৫ সালে। 

কিংবদন্তি এই ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় ১৯৭১ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা একটি টেস্ট ম্যাচের মধ্য দিয়ে। এর তিন বছর পর ১৯৭৪ সালে একই দেশের বিপক্ষে ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। অসাধারণ পারফরমেন্স দিয়ে দীর্ঘদিন খেলেছেন জাতীয় দলের হয়ে। এক সময় পাকিস্তান জাতীয় দলের অধিনায়কের দায়িত্বও পান তিনি।

তাঁর নেতৃত্বেই ১৯৯২ সালের বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল পাকিস্তান। ক্রিকেট মাঠের পারফরমেন্স দিয়ে ইমরান জয় করে নেন পাকিস্তানের সর্বস্তরের মানুষের হৃদয়। এক সময় তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন তিনি। ক্রিকেট থেকে অবসরের পর এই জনপ্রিয়তাকেই কাজে লাগান ইমরান।

১৯৯২ সালে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেন তিনি। তখন থেকেই একটু একটু করে রাজনীতির দিকে দৃষ্টি দিতে শুরু করেন এই ক্রিকেটার। ইমরান খান ১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠা করেন তার রাজনৈতিক দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ।

ক্রিকেট মাঠের মতো রাজনীতির মাঠেও দ্রুত জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করেন ইমরান খান। সেই সঙ্গে পাকিস্তানের জনগণের কাছে একসময় দারুণ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে তার প্রতিষ্ঠিত রাজনৈতিক দলটি। 

একসময় পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় রাজনৈতিক দলগুলোর একটি হয়ে উঠে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ। সে জনপ্রিয়তার প্রমাণ পাওয়া গেল ২০১৮ সালের ২৫ জুলাইয়ের জাতীয় নির্বাচনে। 

এই নির্বাচনে তাঁর দল সবচেয়ে বেশি আসন পেলেও সরকার গঠনের জন্য তা যথেষ্ট ছিল না। পরে ছোট ছোট দল এবং স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যদের সমর্থনে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ ক্রিকেট জেতা অধিনায়ক ইমরান খান।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2