শিরোনাম:

রংপুরের দর্শনা মোড়ে সড়কে বেহাল দশা, ভোগান্তি চরমে

সোহেল রশীদ, রংপুর
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বুধবার
প্রকাশিত: 7:33 আপডেট: 7:34
রংপুরের দর্শনা মোড়ে সড়কে বেহাল দশা, ভোগান্তি চরমে

রংপুর মহানগরীর ১৫নং ওয়ার্ডের দর্শনা মোড়ের ফুলবাড়ি সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে। সড়কটির বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দে ভরে গেছে।
 
সামান্য বৃষ্টিতে সড়কটিতে কাঁদা পানি জমে একাকার হয়ে পথচারীদের চলাচলে বিঘ্ন ঘটাচ্ছে।ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টির পানি জমে এমনটা হচ্ছে বলে স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পথচারীরা দাবি করেন।
 
এদিকে, সড়কটির এমন বেহাল দশায় বাস চালকসহ পথচারী ও স্থানীয় ব্যবসায়ীদের চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়। তার পরেও সড়কটি সংস্কারে কর্তৃপক্ষ কোনও পদক্ষেপ না নেয়ায় স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ পথচারীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা সড়কটির দ্রুত সংস্কার দাবি করেছেন।
 
স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পথচারীরা জানান, রংপুর মহানগরীর গুরুত্বপুর্ণ একটি এলাকা দর্শনা মোড়। এই এলাকা দিয়ে রংপুর-নাগেরহাট-ফুলবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কে প্রতিদিনই লোকাল বাস, ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রো, অটো, ট্যাংলড়িসহ অসংখ্য যানবাহন চলাচল করে। তাছাড়া এলাকাটি সবজি নির্ভর হওয়ায় প্রতিদিনই শত শত কৃষক তাদের উৎপাদিত পণ্য নিয়ে রংপুর মহানগরীতে বিক্রি করতে আসেন। অথচ বর্তমানে সড়কটি বেহাল দশায় স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ যানবাহন চালক ও পথচারীরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।
 
সেবা কৃষি উন্নয়ন সমিতির সভাপতি রায়হান আলী গোলাপ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না থাকা সড়কটির অবস্থা আগে থেকেই বেহাল। তাছাড়া ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সামন্য বৃষ্টিতে পানি জমে দুর্ভোগ সৃষ্টি হচ্ছে। এতে করে স্থানীয় ব্যবসায়ীসহ পথচারীদের ভোগান্তিতে পড়তে হয়।
 
তিনি দ্রুত সড়কটি সংস্কার ও পানি নিস্কাষনের ব্যবস্থা করার দাবি জানান।
 


স্থানীয় সালেকুজ্জামান সুমন জানান, সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা।
 
ব্যবসায়ী রশিদুল ইসলাম জানান, সামান্য বৃষ্টিতে সড়কটিতে পানি জমে থাকে। ফলে পথচারীসহ ক্রেতারা দোকানগুলোতে কিছু কেনার জন্য যেতে পারছেন না। এতে ব্যবসায়ীরা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন বলে তিনি দাবি করেন।
 
রংপুর সিটি করপোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকারিয়া ইসলাম শিপলু জানান, সড়কটি এলজিইটির হলেও তিনি জনদুর্ভোগ লাঘবে ব্যক্তিগতভাবে তিন ট্রাক রাবিশ ফেলেছেন। কিন্তু তাতেও কোনও কাজ হচ্ছে না। তিনি জানান, ইতিমধ্যে ড্রেন নির্মাণের জন্য মেয়রের সঙ্গে কথা বলেছেন।
 
ব্রেকিংনিউজ/আরএ

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2