স্বাস্থ্য সহকারীরা করোনা যুদ্ধে পিছিয়ে!

মাজহারুল করিম অভি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
৭ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৮:৩১

স্বাস্থ্য সহকারীরা করোনা যুদ্ধে পিছিয়ে!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় করোনা ভাইরাসে সংক্রমণের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। গতকাল রাতে আসা রিপোর্টে জানা যায় জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ২৬০ জন। পর্যাক্রমের প্রতিনিয়ত জেলায় আক্রান্ত সংখ্যা বেড়েই চলছে।  সেই সাথে করোনায় ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুদ্ধ করে যাচ্ছে ডাক্তার ও সেবাকর্মী নার্সরা। 

তবে উল্লেখ যোগ্যা সংখ্যায় করোনা যুদ্ধে পিছিয়ে নেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা স্বাস্থ্য সহকারীরা। জেলা প্রত্যেক উপজেলার স্বাস্থ্য সহকারীরা নিজেদের নির্দিষ্ট কাজ ছাড়াও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দিয়ে যাচ্ছে করোনা রোগীদের সেবা। 

সূত্রে জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ৯ টি উপজেলায় ১৭ জন স্বাস্থ্য সহকারী করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে- সদর উপজেলায়-২ জন, নবীনগরে ৫ জন, আখাউড়া ২ জন, কসবা ৪ জন, আশুগঞ্জে ১ জন, ওবাঞ্ছারামপুরে ৩ জন। পর্যাক্রমে করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের পরও স্থির হয়ে যায় নিজ নিউজ উপজেলার স্বাস্থ্য সহকারীরা। তারা নিয়মিত বিভিন্ন রোগে টিকা প্রদানসহ করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় রেখেছেন অগ্রণী ভূমিকা। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আখাউড়া স্থলবন্দরে ভারত থেকে আসা যাত্রীদের মেডিকেল টিমের মাধ্যমে স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজে অংশগ্রহণ, নিজ নিজ কর্মরত উপজেলান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণ, বাড়ি বাড়ি গিয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা করোনা ভাইরাস উপসর্গ রোগীদের সেবা প্রদানসহ নমুনা সংগ্রহের কাজে অংশগ্রহণ করছেন। স্বাস্থ্যসহকারীরা সাধারণত মাঠ পর্যায়ে মা ও শিশুদের যক্ষা, নিমোনিয়া, ডিফতেরিয়া, হোপিং কাশি, পোলিও, হেপাটাইটিস বি, হেপাটাইটিস ইনফ্লোয়েঞ্জা, ধনুস্টংকার, এফআইবি, হাম-রোবেলাসহ ১০ টি রোগের প্রতিশেধক টিকা প্রদান করে আসছেন।

তবে তাদের এই নিয়মিত কাজ ব্যাতিত পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে রোগীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেবা প্রদান করতে গিয়েই নিজেরাও ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন। 

করোনা আক্রান্ত নবীনগর উপজেলা হেলথ্ এসিসট্যান্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমার শরীরে করোনা উপসর্গ বুঝতে পেরে গত ২০ জুন নমুনা পরীক্ষা করালে গত ২৮ জুন আমার রিপোর্টে করোনা পজিটিভি আসে এবং সেই সময় থেকেই আমি হোম আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছি। করোনা রোগী সংস্পর্শে থাকার কারণে আমি করোনা পজিটিভ হয়েছি।

তিনি আরো জানান, ডাক্তাররা প্রতিদিন ২ বার করে আমার শরীর-স্বাস্থ্যের খবর নিচ্ছেন। বর্তমানে আমি সুস্থ অনুভব করছি।  

এ ব্যাপারে জেলা হেলথ্ এসিসট্যান্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আরশাদুল ইসলাম বলেন, আমরা স্বাস্থ্যসহকারীরা ননটাচ পদ্ধতিতে মা ও শিশুদের ১০টি রোগের নিয়মিত টিকা দিয়ে আসছি। দুর্ভাগ্য আমাদের, আজও সরকার টেকনিক্যাল পদমর্যাদা দেয়নি। বর্তমান করোনা মহামারিতে স্বাস্থ্য সহকারীরা ঝুঁকি নিয়ে নমুনা সংগ্রহ, প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনসহ ভারত থেকে আসা যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজে অংশগ্রহণ করে স্বাস্থ্যসহকারীরা একে একে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। আমাদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার জন্য আরো স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কাছ থেকে সহযোগিতা কামনা করি। 

ডাক্তার ও নার্সরা মাঠে কেন নেই এই ক্ষোভ প্রকাশ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সদস্য সচিব দীপক চৌধুরী বাপ্পী বলেন, ডাক্তার ও নার্স থাকতে স্বাস্থ্য সহকারীরা কেন মাঠে কাজ করছে তা বোধগম্য নয়। কারণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্বাস্থ্যখাতের বেহাল অবস্থা। যেহেতু ডাক্তার ও নার্সদের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সহকারীরা মাঠে কাজ করছে তাই তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি।

এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. মো. একরাম উল্লাহ বলেন, ডাক্তার ও নার্সদের পাশাপাশি পর্যায়ক্রমে স্বাস্থ্য সহকারীরা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে তাদের ভূমিকা অপরিসীম। আক্রান্ত রোগীদের দ্রুত সুস্থতায় উন্নত চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

ব্রেকিংনিউজ/এমএইচ

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি