শেয়ারবাজারে কালো মেঘ, ভয়ানক শঙ্কায় রাস্তায় বিনিয়োগকারীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৫ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার
প্রকাশিত: ০৫:২২ আপডেট: ০৯:০৪

শেয়ারবাজারে কালো মেঘ, ভয়ানক শঙ্কায় রাস্তায় বিনিয়োগকারীরা

ভয়াবহ অবস্থা দেশের শেয়ারবাজারে। এ যেন মাথার ওপর কালো মেঘ। সূচক ও লেনদেনে ধস নেমেছে। কমছে সব ধরনের শেয়ারের দর। গত দুই-তিন দিন ধরেই ব্যাপক আকারে শেয়ারবাজারের দরপতন হচ্ছে, ইতিহাসকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। গত প্রায় ৫ বছরের মধ্যে এরকম দরপতন দেখা যায়নি। 

২০২০ সালের শুরু থেকেই টানা এমন দরপতনের মধ্যে দিশেহারা বিনিয়োগকারীরা। অনিশ্চয়তা ও শঙ্কা নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন বিনিয়োগকারী। দেশের দুই শীর্ষ পুঁজিবাজার ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের হাজার হাজার বিনিয়োগকারী বিক্ষোভ করছেন।

তাদের অভিযোগ, ডিএসই-সিএসই ও কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলা শেয়ারবাজারের উন্নয়নে যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এ অবস্থায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বিনিয়োগকারীরা।

প্রতিনিয়ত পুঁজি হারিয়ে দিশেহারা তারা। তারা তাদের বিনিয়োগ করা পুঁজি রক্ষার কোনো উপায় পাচ্ছেন না। এতে নীরবে তাদের রক্তক্ষরণ বেড়েই চলছে। মানসিকভাবে ভেঙেও পড়েন অনেক বিনিয়োগকারীরা। অনেকে রাতে ঠিকমতো ঘুমাতে পারছেন না। সংসার জীবনেও অশান্তি দেখা দিয়েছে কারও কারও।

এতে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৮৭ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৩৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আগের দিন এ সূচকটি কমে ৮৮ পয়েন্ট। এর আগে গত সপ্তাহের ৫ কার্যদিবসে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক কমে ২৬১ পয়েন্ট। এতে শেষ ৮ কার্যদিবসে সূচকটি কমল ৪১১ পয়েন্ট। 

২০১৫ সালের ৭ মে’র পরে শেয়ারবাজারের এই অবস্থা দেখা যায়নি। যা ৪ বছর ৮ মাস অর্থাৎ ৫৬ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে ২০১৫ সালের ৭ মে একই অবস্থানে ছিল ডিএসইএক্স সূচকটি।

মঙ্গলবারও (১৪ জানুয়ারি) ৮০ শতাংশ শেয়ারের দরপতন হয়েছে। এদিন লেনদেন শুরুই হয় পতন দিয়ে। একপর্যায়ে সূচক ১০৩ পয়েন্ট পর্যন্ত কমে যায়, লেনদেন শেষে ৮৭ পয়েন্ট কমে স্থির হয় ৪ হাজার ৩৬ পয়েন্টে। 

এবিষয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাবেক সভাপতি শাকিল রিজভী বলেন, ‘বিদেশি বিনিয়োগ চলে যাচ্ছে শেয়ারবাজার থেকে। তারা এখন শেয়ার ধরে রাখতে চাইছে না। প্রতিদিন বিক্রি করছেন। মৌলভিত্তির কোম্পানিগুলোর দর এ কারণে কমছে।

তবে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা আবার কেনা শুরু করলে বাজার ঘুরে দাঁড়াবে বলেও দাবি করে তিনি বলেন, ‘বাজারে এখন আস্থার সংকটই সবচেয়ে বেশি। ফলে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাও হতাশ হয়ে শেয়ার বিক্রি করে দিচ্ছেন। এছাড়া তারল্য সংকটও একটি বড় কারণ। নগদ অর্থের সরবরাহ করা ছাড়া এই পরিস্থিতির উন্নতি হবে না।’

শেয়ারবাজারের সংকট নিরসনে উদ্যোগ নিচ্ছে সরকারও। আগাশী ২০ জানুয়ারি স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। 

শেয়ারবাজারে ভয়াবহ দরপতনের যুক্তিসঙ্গত কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না বিশ্লেষকরা। পতনের প্রবণতা দেখে অনেকেই বিস্মিত। তবে তারা মনে করছেন, বিনিয়োগকারীদের আস্থা সংকট আর সুশাসনের অভাবে শেয়ারবাজারে এ দুরবস্থা।

বিনিয়োগকারীদের সামনে এখন গত বছরের অবস্থা ভাসছে। বছর জুড়েই ছিল শেয়ারবাজারে টালমাটাল অবস্থা। পতনের সাগরে হাবুডুবু খেয়েছে শেয়ারবাজার। সপ্তাহের ব্যবধানে হারিয়েছে শত শত কোটি টাকা। শুধু গত এক বছরেই ঢাকা স্টক একএসচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন প্রায় ৭১ হাজার কোটি টাকা কমে গেছে।

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ 

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
 Monetized by Galaxysoft
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি