১০ বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছে ইলিশ আহরণ

কক্সবাজার প্রতিনিধি
২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০৪:৫৪

১০ বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছে ইলিশ আহরণ

বঙ্গোপসাগরে ও স্থানীয় নদ-নদীতে শীত মৌসুমে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে, দামও ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে। কক্সবাজারে গত ১০ বছরের রেকর্ড ছাড়িয়েছে ইলিশ আহরণ।
 
মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী- মাত্র ১৫ দিনে জেলেদের জালে ধরা পড়েছে ৩০০ মেট্রিক টন ইলিশ। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ১০ কোটি টাকার বেশি। যেখান থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৬ লাখ টাকা। ইলিশের ডিম দেওয়ার মৌসুমে সরকারের সিন্ধান্ত অনুযায়ী মাছ শিকার বন্ধের কারণকেই এর সুফল হিসেবে দেখছে মৎস্য সংশ্লিষ্টরা।
 
এ দিকে সমুদ্রে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ায় সন্তুষ্ট জেলে-বোট মালিকসহ মৎস্য ব্যবসায়ীরা। পাশাপাশি ইলিশের দাম হাতের নাগালে থাকায় খুশি ক্রেতারা। এই ধারা অব্যাহত থাকালে এই মাসে‘ই হাজার মেট্রিক টন ইলিশ আহরণ সম্ভব বলে আশা করছেন মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা।
 
কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, পুরো পল্টন জুড়েই ভরে গেছে সামুদ্রিক মাছে। তার মধ্যে ইলিশ‘ই ছিল উল্লেখযোগ্য। পল্টনের ভিতরে-বাহিরে শুধু ইলিশ আর ইলিশ। আর এই মাছকে কেন্দ্র করে ছিল ব্যস্ত এক পরিবেশ। 
দেখা গেছে, সমুদ্র থেকে মাছ শিকার শেষে পল্টনের পাশে বাঁকখালী নদীকে ভেড়া ট্রলার থেকে মাছ নামানোতে ব্যস্ত সময় কাটছে জেলেদের। মাছ গণনাসহ নানা হিসাব নিয়ে কারো সাথে বাড়তি কথা বলার সুযোগ পাচ্ছেনা বোট মালিক আর মাঝিরা। পাশাপাশি মাছ ব্যবসায়ীদেরও কাটছে চরম ব্যস্ততা। প্রজাতি অনুযায়ী ভাগ করা, স্থানীয় বাজারের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন প্রান্তে রফতানির জন্য মাছ ট্রাক-পিকআপে তোলা, বরফ দেওয়া, খুচরা এবং পাইকারী মাছ ক্রেতাদের বিক্রিসহ মৎস্য সংশ্লিষ্টদের চরম ব্যস্ত সময় কাটাতে দেখা গেছে।
 
এ দিকে সাগরে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়ায় প্রাপ্তি আর তৃপ্তির হাসি ছিল জেলে ও মাছ ব্যবসায়ীদের মুখে। এতে ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়ই ছিল খুশি।
 
সমুদ্র থেকে ইলিশ ভর্তি ট্রলার নিয়ে ফেরা মাঝি লিয়াকত মিয়া জানান, তিনি দীর্ঘ ১২ বছরেরও বেশি সময় ধরে সাগরে মাছ ধরতে যান। কিন্তু এই শীতের মৌসুমে যেভাবে ইলিশ মাছ ধরা পড়েছে তা আগে কখনো দেখেননি। কেন এমনটা হল জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকারের সিন্ধান্ত অনুযায়ী ডিম দেওয়ার মৌসুমে ইলিশ ধরা বন্ধ থাকায় এই ফলাফল।
 
কক্সবাজার ফিসারী ঘাটের মাছ ব্যবসায়ী মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, শীত মৌসুমে এত ইলিশ আগে দেখিনি। অন্যান্য মাছের তুলনায় পর্যাপ্ত ইলিশ পড়ায় আমরা খুবই সন্তুষ্ট। এভাবে চলতে থাকলে ব্যবসায় লোকসান হবেনা।
 
আরেক মাছ ব্যবসায়ী জাফর আলম বলেন, আমি পল্টনে এমন ভরপুর ইলিশের চিত্র দেখিনি। প্রতিবছরই এই দৃশ্য দেখতে চাই। এর ফলে বিক্রেতাদের পাশাপাশি সন্তুষ্ট ক্রেতারা। সাগরে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়ায় স্থানীয় বাজারের চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে রফতানি হচ্ছে।
 
ফিসারী ঘাটে মাছ কিনতে আসা রিপন চৌধুরী বলেন, কদিন ধরে কম দামে ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে। তাই সরাসরি পল্টনে চলে আসলাম বেশি করে ইলিশ নিয়ে যেতে। ইলিশের দাম হাতের নাগালে আসায় সবাই এই সুস্বাধু মাছ খেতে পারছে।
 
কক্সবাজার মৎস্য প্রকিয়াকরণ ও বিপণন কেন্দ্রের ম্যানেজার মো. জাহিদুল ইসলাম জানান, এই শীতের মৌসুমে গত ১৫ দিনে কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে আহরণ হয়েছে ৫০০ মেট্রিক টন মাছ। তার মধ্যে শুধু ইলিশ আহরণ হয়েছে ৩০০ মেট্রিক টন। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ১০ কোটি টাকার বেশি। এখান থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৬ লাখ টাকা। যা গত ১০ বছরেও হয়নি। প্রজনন মৌসুমে মাছ শিকার নিষিদ্ধসহ মৎস্য সম্পদ রক্ষার্থে সরকারের যুগান্তকারী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে জেলাবাসী।
 
ব্রেকিংনিউজ/এমএইচ

breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
 Monetized by Galaxysoft
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি