‘বৈশ্বিক অর্থনীতির উত্তরণ প্রক্রিয়া আরও দীর্ঘায়িত হবে’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২৮ জুন ২০২০, রবিবার
প্রকাশিত: ১০:২৩ আপডেট: ১০:২৪

‘বৈশ্বিক অর্থনীতির উত্তরণ প্রক্রিয়া আরও দীর্ঘায়িত হবে’

বিশ্ব ‘কখনো’ করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) থেকে মুক্ত হতে পারলেও অর্থনীতিতে এর ছাপ থেকে যাবে। এই মহামারির প্রভাব থেকে বিশ্বের অর্থনৈতিক উত্তরণ প্রক্রিয়া অনেক ধীরগতির, জটিল এবং আরও দীর্ঘয়িত হবে। এছাড়াও এটি অর্থনীতিতে স্থায়ী কিছু পরিবর্তনের সূচনা করবে বলে মনে করছেন ইউরোপিয়ান সেন্ট্রাল ব্যাংকের (ইসিবি) প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন লাগার্দে। খবর ব্লুমবার্গ।

শুক্রবার (২৬ জুন) এক ওয়েবিনারে ক্রিস্টিনা লাগার্দে বলেন, ‘এই মহামারির সবচেয়ে খারাপ পর্যায় থেকে উত্তরণের পরও বিনিয়োগ ও ব্যয় বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় সঞ্চয় জমা হতে অনেক সময় লেগে যেতে পারে। আর যতক্ষণ না বাণিজ্য করোনা-পূর্ব অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে এবং উৎপাদন কার্যক্রমে স্থবিরতা থাকছে, ততদিন অর্থনৈতিক উত্তরণও অপূর্ণ থেকে যাবে।’

ইসিবি প্রধান আরো বলেন, ‘আমরা হয়তো অর্থনীতির সবচেয়ে খারাপ সময়টা কাটিয়ে এসেছি। এয়ারলাইনস, আতিথেয়তা ও বিনোদন শিল্প তাদের নিজেদের মতো করে ভিন্ন আঙ্গিকে সংকট থেকে উত্তরণের চেষ্টা করছে। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে ক্ষত এত বেশি হবে যে তা সহজে নিরাময় করা সম্ভব হবে না।’

সম্প্রতি ইসিবির প্রধান অর্থনীতিবিদ ফিলিপ লেন সতর্ক করে বলেন, ‘অর্থনৈতিক উত্তরণের প্রাথমিক যে লক্ষণগুলো দেখা যাচ্ছে, সেগুলোর ওপর ভিত্তি করে পুনরুদ্ধারের গতি ও আকার সম্পর্কে পূর্বানুমাণ করাটা শেষ পর্যন্ত ভুল প্রমাণ হতে পারে।’

করোনার প্রভাব থেকে ইউরোপীয় অর্থনীতিকে সুরক্ষা দিতে ইসিবি এরই মধ্যে ১ লাখ ৩৫ হাজার কোটি ইউরোর (১ লাখ ৫২ হাজার কোটি ডলার) প্রণোদনা প্যাকেজ চালু করেছে। এ প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে জরুরি বন্ড ক্রয় কর্মসূচি, স্বল্প সুদে ঋণ সরবরাহে ব্যাংকগুলোকে সহায়তার জন্য বিভিন্ন টুলস কাজে লাগানো ইত্যাদি।

লাগার্দে বলেছেন, অর্থনীতির সুরক্ষায় সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে ঋণের পরিমাণ অনেক বেড়েছে। করোনা-পরবর্তী সময়ে এ ঋণ পরিশোধের চাপ থাকবে। এছাড়া সংকট মোকাবেলায় আর্থিক নীতি ও মুদ্রানীতিকে হাতে হাত রেখে এগোতে হচ্ছে। ফলে অনেক ক্ষেত্রেই সুদহার নজিরবিহীনভাবে কম রাখতে হচ্ছে।

লাগার্দের মতে, করোনা সংকটের কারণে ভবিষ্যতে অর্থনীতিতে ব্যাপক রূপান্তর ঘটতে পারে। কারণ বর্তমান পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে অনেক শিল্পের জন্ম হচ্ছে, যা পরবর্তীতেও থেকে যাবে।

দরিদ্র, তরুণ ও নারীসহ সবচেয়ে সংবেদনশীল অবস্থায় থাকাদের দিকে বিশেষ নজর দেয়ার জন্য নীতিনির্ধারকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইসিবি প্রেসিডেন্ট। কারণ করোনার অর্থনৈতিক নেতিবাচক প্রভাব তাদের ওপরই সবচেয়ে বেশি পড়েছে। 

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সংকটের সময় আতিথেয়তা খাতে কাজের সুযোগ কমে গেছে। স্বল্পমেয়াদি চুক্তিভিত্তিক অনেক কর্মীও এখন কাজ হারাচ্ছেন। আর নারীরা তো যেকোনো সংকটের সময়ই সবার আগে ক্ষতিগ্রস্ত হন।’

ব্রেকিংনিউজ/এম

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি