আইসিজের রায়কে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ১০:৩৫

আইসিজের রায়কে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার দায়ের করা রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলায় আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (আইসিজে) যে রায় দিয়েছেন তাকে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ। রায়কে মানবতার বিজয় এবং সকল জাতির মানবাধিকার আন্দোলন কর্মীদের জন্য মাইলফলক হিসাবে বর্ণনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন।

রায় ঘোষণার পর এক প্রতিক্রিয়ায় একথা বলেন ইকুয়েডোর সফরত পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘আমরা এই রায়কে স্বাগত জানাই…আমার বিশ্বাস মিয়ানমার এই আদালতকে সম্মান জানাবে…তাদের (মিয়ানমার) পক্ষে একে অগ্রাহ্য করা সম্ভব হবে না।’

তিনি বলেন, ‘এই রায় দুইভাবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে সুফল বয়ে আনবে। একদিকে মিয়ানমার এখন থেকেই তাদের লোকদের ফিরিয়ে নিতে রাখাইনে অনুকুল পরিবেশ তৈরিতে আরও আন্তরিক হবে। অপর দিকে রোহিঙ্গরা স্বেচ্ছায় নিজ ঘর-বাড়িতে ফিরে যেতে ভরসা পাবে।’

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক আদালত-আইসিজে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার নৃশংসতা না চালানোর নির্দেশনা দিয়েছেন…এটি তাদেরকে (রোহিঙ্গা স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসনে আস্থাশীল করবে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এই রায় মিয়ানমারের ওপর বিরাট আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টি করবে এবং এই রায়ের ভিত্তিতে রাশিয়া এবং চীনও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুর জন্য মিয়ানমারের ওপর চাপ দেবে।’

রাশিয়া এবং চীন ইতোমধ্যেই রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের ব্যাপারে সম্মত হয়েছে এবং এই রায় এখন মিয়ানমারকে প্রত্যাবাসনে রাজি করাতে সহায়ক হবে বলেও মন্তব্য করেন ড. একে আব্দুল মোমেন।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতন ও নিধনযজ্ঞের বিরুদ্ধে মামলায় আজ বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় নেদারল্যান্ডের হেগে জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালত ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস (আইসিজে) রায় দিয়েছেন।

রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, ‘গাম্বিয়ার করা মামলায় আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতকে অসহযোগিতা করেছে। ২০১৭ সালে রাখাইনে বেসমারিক নিরাপত্তায় ব্যর্থ হয়েছে মিয়ানমার। জেনোসাইড কনভেনশন অনুযায়ী কোনো রাষ্ট্র বিচারের ঊর্ধ্বে নয়। এক রাষ্ট্র আরেক রাষ্ট্রের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারে। গাম্বিয়ার দাবি যথাযথ। রোহিঙ্গা গণহত্যার দায় কোনোভাবেই মিয়ানমার এড়াতে পারে না।’

আন্তর্জাতিক আদালত আরও বলেন, ‘রাখাইনের সঙ্গে রোহিঙ্গাদের সম্পর্ক বহুবছরের। কিন্তু সেখানে সেনাবাহিনী দ্বারা জঘন্য অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। এই অপরাধের বিচার করার এখতিয়ার আন্তর্জাতিক আদালতের রয়েছে।’

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ 

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি