২ হাজারের নিচে নামছে না সংক্রমণ, বিপদের মুখে বাংলাদেশ?

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৬ জুন ২০২০, শনিবার
প্রকাশিত: ১০:২৫

 ২ হাজারের নিচে নামছে না সংক্রমণ, বিপদের মুখে বাংলাদেশ?

বাংলদেশে নতুন করে ২ হাজার ৬৩৫ জনের মধ্যে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। দেশে করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের ৯০তম দিনে (৭ জুন) আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৬৩ হাজার।
 
দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় ৮ মার্চ। এরপর ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে সংক্রমণ। গত ১১ এপ্রিল একদিনের আক্রান্ত পৌছায় হাজারের কোটায়। হাজার কোটার ধারাবাহিকতা রেখে গত ২৮ এপ্রিল আক্রান্ত পৌঁছায় ২ হাজারের তালিকায়। গত ২ জুন সেই তালিকা (একদিনে আক্রান্ত) পৌছায় প্রায় তিন হাজার। সেদিন আক্রান্ত হয়েছিল ২৯১১।
 
দিনে ২ হাজার আক্রান্ত শুরু হওয়ার পর একদিনেও শনাক্তের সংখ্যা দুই হাজারের নিচে নামেনি বাংলাদেশে। এছাড়াও ৩০ জনের বেশি মানুষ মারা যাচ্ছে টানা কয়েকদিন ধরে।
 
প্রতি সপ্তাহে আগের সপ্তাহের চেয়ে বেশিসংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। ক্রমে সংক্রমণের চূড়ান্ত (পিক) পর্যায়ের দিকে যাচ্ছে দেশ। সংক্রমণ শনাক্তের দশম সপ্তাহে এসে এর জোরালো ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।
 
করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ২১তম। এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ ৮ম। আর দক্ষিণ এশিয়ায় তৃতীয়। এই অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়ে শীর্ষে প্রতিবেশী ভারতে, তারপরেই পাকিস্তানের  অবস্থান।
 
রোগতাত্ত্বিকভাবে এই পরিস্থিতিকে দেশের জন্য ‘বিপদ সংকেত’ বলে উল্লেখ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেন, অতিদ্রুত সাবধান হতে হবে। নিতে হবে কার্যকর ব্যবস্থা। আক্রান্তের সংখ্যা কমাতে না পারলে পরিস্থিতি কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। এটা প্রাকৃতিকভাবে নিয়ন্ত্রিত হবে না, সমন্বিতভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
 
তাদের মতে, কয়েক দফায় অপরিকল্পিতভাবে বিপুলসংখ্যক মানুষ ঢাকা থেকে যাওয়া-আসার কারণে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। বর্তমানে ঢাকাসহ সারা দেশে বাস, ট্রেন, লঞ্চে অবাধ যাতায়াতের কারণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা আছে বলে বিশেষজ্ঞরা উল্লেখ করেন।
 
বিশ্লেষকেরা বলছেন, আগের চেয়ে সংখ্যা বাড়লেও এখনও প্রয়োজনের তুলনায় পরীক্ষা কম হচ্ছে। তাই কবে নাগাদ সংক্রমণ চূড়ান্ত পর্যায়ে যাবে, তা নির্দিষ্ট বা বিধিনিষেধ শিথিল করার কারণে এই পরিস্থিতি হলো কি না, সেটা দেখতে হবে। সেটি হলে পরিস্থিতি অনুমানের চেয়ে খারাপ হবে।
 
রোগতত্ত্ব রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের (আইইডিসিআর) প্রাক্তন প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও রোগতত্ত্ববিদ ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, রোগীর সংখ্যা ও মৃতের হার যেভাবে বাড়ছে এটা দেশের জন্য বিপদ সংকেত দিচ্ছে। আক্রান্তের সংখ্যা কমাতে না পারলে পরিস্থিতি কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না।
 
ব্রেকিংনিউজ/ এসএ

breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি