একজন শাহজাহান সিরাজ ও মুক্তিযুদ্ধের মহান ‘খলিফা’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৪ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ আপডেট: ০৯:০৭

একজন শাহজাহান সিরাজ ও মুক্তিযুদ্ধের মহান ‘খলিফা’
বঙ্গবন্ধুর বাঁ পাশে ছাত্র নেতাদের সঙ্গে শাহজাহান সিরাজ। ছবি সংগৃহিত

মহান স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠকারী, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, চারবারের সাবেক সংসদ সদস্য এবং সাবেক বন ও পরিবেশমন্ত্রী বিএনপি নেতা শাহজাহান সিরাজ আর নেই। মুক্তিযুদ্ধের কথিত ‘চার খলিফার’ একজন ছিলেন তিনি। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর এয়ার কেয়ার (সাবেক অ্যাপোলো) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই তুখোড় রাজনীতিক। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। আসুন পাঠক, একনজরে মুক্তিসংগ্রামের এই মহান খলিফার জন্ম-মৃত্যু ও রাজনৈতিক লড়াই-সংগ্রামের দীর্ঘ পথপরিক্রমার দিকে ফিরে তাকাই। 

১৯৪৩ সালের ১ মার্চ টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে জন্মগ্রহণ করেন শাহজাহাল সিরাজ। ১৯৬২ সালে টাঙ্গাইলের করটিয়া সা’দত কলেজের ছাত্রাবস্থায় হামিদুর রহমান শিক্ষা কমিশন বিরোধী আন্দোলনে সম্পৃক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে তিনি ছাত্র রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। 
বাংলাদেশ ছাত্রলীগের মাধ্যমে ছাত্র রাজনীতিতে পা রাখা শাহজাহান সিরাজ ১৯৬৪-৬৫ ও ১৯৬৬-৬৭ দুই মেয়াদে করটিয়া সা’দত কলেজের ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হন। একজন সক্রিয় ছাত্রনেতা হিসেবে তিনি ১১ দফা আন্দোলন ও ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানে সাহসী ভূমিকা রাখেন। 

১৯৭০-৭২ মেয়াদে অবিভক্ত ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ছিলেন ‘স্বাধীন বাংলা বিপ্লবী পরিষদ’ (যার অন্য নাম নিউক্লিয়াস) এর সক্রিয় কর্মী, ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নেতা।

স্বাধীনতা পরবর্তী সর্বদলীয় সমাজতান্ত্রিক সরকার গঠনের পক্ষে অবস্থান নিয়ে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) গঠনে ভূমিকা রাখেন শাহজাহান সিরাজ। যা ছিল স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম বিরোধী দল। জাসদের প্রতিষ্ঠাতা সহকারী সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তিনি। পরবর্তীতে তিনি জাসদের সভাপতি নির্বাচিত হন এবং জাসদের মনোনয়নে তিনবার তিনি টাঙ্গাইল-৪ সংসদীয় আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। 

১৯৯৫ সালে বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপিতে যোগ দেন শাহজাহান সিরাজ। ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বিএনপির মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বেগম জিয়া সরকার তাকে বন ও পরিবেশবিষয়ক মন্ত্রী করেন এবং সরকারের শেষ দিকে তিনি নৌপরিবহন মন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছিলেন শাহজাহান সিরাজ। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে যাদের ‘চার খলিফা’ বলা হতো তাদের শাহাজান সিরাজ ছিলেন তাদেরই একজন। অপর তিনজন হলেন নূরে আলম সিদ্দিকী, আ স ম আব্দুর রব ও আবদুর কুদ্দুস মাখন।

১৯৭১ সালের ১ মার্চ তিনি সিরাজুল আলম খান, শেখ ফজলুল হক মনি, আব্দুর রাজ্জাক, তোফায়েল আহমেদ, আব্দুল কুদ্দুস মাখন, নূরে আলম সিদ্দিকী, আ স ম আব্দুর রব প্রমুখ ছাত্রনেতার পাশাপাশি স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠনে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছিলেন। 

১৯৭১ সালের ২ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন আ স ম আব্দুর রব। সেখান থেকেই পরবর্তী দিনে স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠের পরিকল্পনা করা হয়। 

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ পল্টন ময়দানে বিশাল এক ছাত্র জনসভায় বঙ্গবন্ধুর সামনে স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠ করেছিলেন শাহজাহান সিরাজ। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে তিনি সশস্ত্র যুদ্ধকালীন ‘বাংলাদেশ লিবারেশন ফোর্স’ (বিএলএফ) বা মুজিব বাহিনীর কমান্ডার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। 

দলের এই শীর্ষস্থানীয় জ্যেষ্ঠ নেতার মৃত্যুতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। একইসঙ্গে মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।  

মৃত্যুকালে শাহজাহান সিরাজ স্ত্রী রাবেয়া সিরাজ, মেয়ে সারোয়াত সিরাজ ও ছেলে রাজীব সিরাজসহ অসংখ্য রাজনৈতিক সহকর্মী-অনুরাগী রেখে গেছেন। 

আরও পড়ুন>>>

বিএনপি নেতা শাহজাহান সিরাজ আর নেই


ব্রেকিংনিউজ/এএইচ/এমআর

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি