এপ্রিলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের আশা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২০ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ আপডেট: ১২:৩১

এপ্রিলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের আশা

আগামী মার্চ-এপ্রিলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান। 

বুধবার (২০ জানুয়ারি) সচিবালয়ে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ারমার নাগরিক রোহিঙ্গাদের জন্য চীন সরকারের ‘ইমার্জেন্সি রাইচ এইড’ হস্তান্তর অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের দেয়া তালিকা থেকে ৪১ হাজার ৭১৯ জন রোহিঙ্গাকে শনাক্ত করেছে মিয়ানমার। এই তালিকা ধরে আগামী মার্চ-এপ্রিলে প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভাইস মিনিস্টার লু জাওহুই এবং মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী সচিব উচানের অংশগ্রহণে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক হয়। 

ডা. এনামুর বলেন, বৈঠকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে পজিটিভ আলোচনা হয়েছে। মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করেছেন। চীন সরকারও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের পক্ষে মত দিয়েছে। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সরকার যে তালিকা দিয়েছে, মিয়ানমার সরকার চায় সেই তালিকা অনুযায়ী ফেরত নিতে। গতকালকের মিটিংয়ে এ পর্যন্ত আলোচনা হয়েছে। আশা করি পরবর্তী মিটিংয়ে আরও অ্যামিকেবল সলিউশন আসবে।

তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে মিয়ানমার ও চীন সরকারের যে মনোভাব দেখেছি, আশা করা হচ্ছে, আগামী মার্চ-এপ্রিলের মধ্যে এ প্রত্যাবাসনটা শুরু হবে। আমরা ইতিবাচক ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছি। 

এনামুল বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের যে গুরুত্বপূণ সম্পর্ক রয়েছে, সেটা বজায় রাখবেন। এছাড়া বাংলাদেশে সকল সমস্যা সমাধানে চীন সরকার বাংলাদেশের পাশে থাকবেন। বিশেষ করে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে তারা কাজ করবেন বলে গতকালকের মিটিংয়ের প্রেক্ষিতে চীনের রাষ্ট্রদূত লি ঝিমিং এ আশ্বাস দিয়েছেন। 

বাংলাদেশের যেমন চীনের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, একইভাবে মিয়ানমারের সঙ্গেও তাদের (চীনের) বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, মিয়ানমারের উন্নয়নে চীনের একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে। সেই জায়গায় চীন যদি সত্যিকারভাবে চায় সেক্ষেত্রে অবশ্যই তারা মিয়ানমার সরকারকে প্রভাবিত করতে পারবে- যোগ করেন প্রতিমন্ত্রী। 

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ৮ লাখ ২৯ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে তারা সাড়ে ৫ লাখ রোহিঙ্গার তালিকা মিয়ানমার সরকারের কাছে পাঠিয়েছে। মিয়ানমার সরকার ৪১ হাজার ৭১৯ জনকে ভেরিফাই করেছে। তাদের নেয়ার কথা তারা জানিয়েছে। 

এদিকে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব মো. মোহসীন বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হলে, তারা (মিয়ানমার) যে সংখ্যাটা নেয়ার কথা বলেছে, সেটা আরও বাড়তে পারে। মিয়ানমার সেখানে তাদের ক্লাস্টার করে রাখবে বলে জানিয়েছে। তবে এ বিষয়ে এখনও বিস্তারিত কিছু বলেনি তারা। 

ব্রেকিংনিউজ/এসআই

breakingnews.com.bd
প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি