হাওড়ের কান্না থামবে কবে!

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
২ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ০৪:২০

হাওড়ের কান্না থামবে কবে!

বাউলশিল্পী শাহ আব্দুল করিম লিখেছিলেন, ‘বন্যার জলে ফসল নিলে কেউ কাঁদে কেউ হাঁসে/ সুনামগঞ্জবাসী কাঁদে, পড়ে পূর্ণ গ্রাসে।/.../ চৈত্র মাসে বৃষ্টিজলে নিলে বোরা ধান/ ভেবে মরি, হায় কী করি বাঁচে কি না প্রাণ?’  

শাহ আব্দুল করিমের মতে শুধু সুনামগঞ্জবাসী নয়, হাওড় অঞ্চলের মানুষর কান্না এখনো শেষ হয়নি।

হাওড় (সাগর সদৃশ) কথাটির শব্দে মিশে আছে মানুষের পশ্চাৎপদতা ও বঞ্চনার চলমান করুণ বাস্তবতা। সরকার ইতিমধ্যে হাওড় বেষ্টিত ১৬টি উপজেলাকে যোগাযোগ, শিক্ষা, চিকিৎসা অন্যান্য বাস্তবতা উপলব্ধি করে বিশেষ অঞ্চল ঘোষণা করেছে। যা রাষ্ট্রের হাওড় বাওড় চর দ্বীপের বঞ্চিত নিগৃহীত মানুষের প্রতি ভালবাসার নিদর্শন হিসেবে।

সেই এক দশক আগেও হাজার হাজার বিঘা ফসলি জমির মাঠ- প্রান্তর,খাল-বিল, ধুলোময় পথ,কখনো কাদা মাটির রাস্তা পেরিয়ে নিতে হত চিকিৎসা ও যোগাযোগের স্বাদ। কেননা নদী কালনী শুকিয়ে চৌচির তাই। এপার হতে ওপার হেঁটে নদী পারাপার সহসাই হওয়া যেত। পানির অভাবে দুর্গম হাওড়ে সেচ বন্ধ- এসবই ছিল একদশক আগের কালনী নদীর ইতিহাস।

হাওড়ের মানুষের দুর্দশা দেখে  মহামান্যের কল্যাণে সরকার এই গুরুত্বপূর্ণ কালনী নদীর খনন কাজ শুরু করে এবং নাব্যতা ফিরিয়ে আনে। হাজার হাজার বিঘা জমিতে ফসল ফলাতে সেই নদীকে খরস্রোতা করে ভারত বাংলাদেশের নৌ যোগাযোগের উপযোগী করে। কিন্তু মানুষের স্বার্থপরতায় বিলীন হতে যাচ্ছে মানুষের স্বপ্ন। থেমে নেই হায়ানাদের থাবা। এই চলতি নদীতে মাছ ধরতে ভিন জাল, খেউ (আঞ্চলিক ভাষায়) দিয়ে নদী ভরাট করতে তারা এতটুকু ভাবছে না। ব্যক্তি স্বার্থপরতা উদ্ধারে হাওড়ের ভাগ্যকে কবর দিচ্ছে তারা। এতে  নদী ভরাটসহ নদী ভাঙন হয়ত আবার ঘটবে! 

অষ্টগ্রামের কদমচাল, কলিমপুর, কলমা, আদমপুর ও বাংগালপাড়া হয়ে কালনীর শেষ পর্যন্ত এই ভিন জালের  অবিচার চলছেই। এতে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ, নৌ যোগাযোগ, নদী ভাঙন, নদী ভরাটসহ নানাবিধ সমস্যা আসন্ন। মহামান্যের বারংবার কঠোর মনোভাব দেখানোর পরও মুষ্টিমেয় স্বার্থবাদীরা এতে পরোয়া করছে না। ভাটির এই গুরুত্বপূর্ণ নদীটির এমন অনাচার রোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি নয়ত সরকারের হাজার কোটি টাকার চলমান প্রকল্প ভেস্তে যাবে এ বেপরোয়া বিবেকশূন্য মানুষদের জন্য। 

লেখক: শাহ আলম সরকার
সহকারী শিক্ষক, বাংগালপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়।

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি