‘সিরাতুন্নবী (সা.) এর পথ ভুলে বিশ্বে মুসলমানরা আজ দেউলিয়া’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:
৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০৮:০৭

‘সিরাতুন্নবী (সা.) এর পথ ভুলে বিশ্বে মুসলমানরা আজ দেউলিয়া’

সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি মুহাম্মদ আব্দুর রউফ বলেছেন, বিশ্বের মানুষ বুঝতেই চাচ্ছে না তারা মানুষ। মানুষের চেয়ে অধিক শ্রেষ্ঠ আর এ সৃষ্টি জগতে নাই। কিন্তু মিথ্যে বলার সুযোগও এই মানুষকে দেয়া হয়নি। সেটার উৎকৃষ্ট উদাহরণ রাসুল (সা.)। আজ মুসলমানদের দেউলিয়াত্ব রাসুলের পথ থেকে সরে আসা। ধর্মীয় অনুশাসনের মধ্যে কোনও সংকীর্ণতা নাই। তাহলে মুসলমানদের কাজ কি? মুসলমানরা হবে সারা বিশ্বের কাজের সাক্ষী। মুসলমানরা হলো আদর্শ। মুসলমানরা কারও সম্পদ হরণ করতে পারে না, খারাপ কিছু করতে পারে না। কিন্তু সঠিক পথটা ভুলে কিন্তু আজ বিশ্বে মুসলমানরাই দেউলিয়া।’

শনিবার (৭ ডিসেম্বর) রাজধানীর আইডিইবি ভবনে ‘বিশ্ব সংকট নিরসনে মহানবীর (সা.) -এর আদর্শ’ শীর্ষক সিরাতুন্নবী (সা.) জাতীয় সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে মাওলানা আবু তাহের জিহাদীর সভাপতিত্বে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আব্দুল মা'বুদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিচারপতি আব্দুল রউফ বলেন, ‘মানুষ হিসেবে সৃষ্টিজগতে তার অবস্থান জানা জরুরি, ইসলাম সম্পর্কে জানা জরুরি। আজ ইসলামকে এন্টি রিলিজয়ন, থিসিস ভাবছেন অনেকেই, কেন? ইসলামের বয়স কতো? এমন প্রশ্নের অনেক উত্তর আসবে। কিন্তু আসলে উত্তর কি? আসলে ইসলামের কোনও বয়স নাই। কারণ ইসলাম সার্বজনীন, সব ধর্ম-বর্ণ-মানুষ-জীবকে নিয়েই ইসলাম। কোনও কিছুই এর বাইরে নয়। আর কোরআন জীবন্ত, কোরআন কথা বলে। প্রশ্ন করলে উত্তরও দেয়। সব সমস্যার সমাধান কোরআনেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘মানুষ সৃষ্টির সেরা মাখলুকাত সেটা বোঝার উপায় কি? মানুষকে দেয়া হয়েছে বিশেষ জ্ঞান। আর ওই জ্ঞানে মানুষই সৃষ্টি নিয়ে কাজ করবেন স্রষ্টাকে খুঁজবেন। ইসলামকে বুঝি। এটা জানান দিই অমুসলিমরাও ইসলামের বাইরে নয়। সৃষ্টিকে জানলে স্রষ্টাকে জানা যাবে। ইসলাম সেই কথাটিই বলে। আল্লাহর সৃষ্টিকে নিয়ে যতোক্ষণ কাজ করেছে ততোক্ষণ মুসলমানদের কেউ হারাতে পারেনি।’

ইসলামী ঐক্যজোটের আমীর আব্দুল লতিফ নেজামী বলেন, ‘মতনৈক্য থাকতেই পারে। কিন্তু মুসলিম উম্মাতের বর্তমান পরিস্থিতিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এক প্লাটফর্মে আসতে হবে। মানবতার দোহাই দিয়ে পৃথিবীতে যারা অশান্তি সৃষ্টি করছে, তাদের বিরুদ্ধে জবাব দিতে পারে তারাই যারা ইসলামী খেলাফত প্রতিষ্ঠা করতে চায়, যারা একমাত্র মোহাট (সা.) নেতা মেনে তার আদর্শ লালন করে ও বাস্তবায়ন করতে চায়।’

অ্যাডভোকেট আব্দুল বাতেন বলেন, ‘মুসলমানরা মার খাচ্ছেন। সবক্ষেত্রে মার খাচ্ছেন। তাওহিদের একাত্মবাদকে তাই ধারণ করে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমাদের সংকট কোথায় সেটা ঠিক করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সমাজ কোথায় এসে দাঁড়িয়েছে। কোর্টে মামলা হচ্ছে। মামলায় মেয়ের অভিযোগ, সে পিতার কাছে নিরাপদ না। কিন্তু আমাদের সবার পথ তো ছিল একটাই সিরাতুল মোস্তাকিমের পথ।’

টেকেরহাটের পীর সাহের মাওলানা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনসারী বলেন, ‘আলেম সমাজের ভূমিকা সমাজ জীবনে কমেছে। উল্টো আলেম সমাজ নির্যাতিত। আজ নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছে। তা কমাতে কজন আলেম আমরা ব্যবসায়ী আড়ৎদারের সাথে যোগাযোগ করেছি। কারণ ব্যবসায়ী ও ক্রেতাসহ এদেশের ৯৫ শতাংশ মানুষই তো মুসলমান। কোরআনের বিষয়ভিত্তিক বিষয়ে মসজিদের খোতবায়, আলোচনায় কথা বলার অনুরোধ জানানো হয়।’

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাবেক ভিসি ড. প্রফেসর চৌধুরী মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘পৃথিবীতে শ্রেষ্ট জীব হচ্ছে মানুষ। সেই মানুষের মধ্যে শ্রেষ্ট মানব হযরত মোহাম্মদ (সা.)। আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন করতে চাইলে আগে মুহাম্মদ (সা.) ভালবাসতে হবে। তার পদাঙ্ক অনুসরণ করতে হবে। রাষ্ট্রব্যবস্থা, সমাজব্যবস্থা, অর্থনীতি, রাজনীতি, কূটনীতি সাংস্কৃতি সবকিছুর ইসলামে রয়েছে, যা রাসুল (সা.) দেখিয়ে দিয়ে গেছেন। পৃথিবীর প্রত্যেকটা মানুষের মুক্তির পথ সিরাতের পথ, যে পথে শান্তি আসবেই।’

মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাবেক আরেক ভিসি প্রফেসর উমার আলী বলেন, ‘সংকট ডিজিটাল জাহেলিয়াত। এটা ভাঙতে হবে। জাহেলিয়াত দূর করতে হলে বিতর্ক না করে একামতে দ্বীন প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে।’

খেলাফত রব্বানীর আমীর মুফতি ফয়জুল হক জালালাবাদী বলেন, ‘মোহাম্মদ (সা.) শুধু একজন ধর্মীয় মানব নন, তিনি মহামানব, তিনি নেতা, তিনি বিচারক, কূটনৈতিক, শাসক, চিকিৎসক, স্বামী, বাবা, সেনাপতি, কৃষক হিসেবেও সর্বোৎকৃষ্ট অনুসরণীয়।’

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মমতাজ উদ্দীন কাদেরী বলেন, ‘বাংলাদেশসহ ৫৩ মুসলিম দেশে যা হচ্ছে তা মঞ্চস্থ করছে ইহুদি খ্রিস্টানরা। এটা আমাদের ভাঙতে হবে। এটা আমাদের রাসুলের আদর্শ ছাড়া সম্ভব নয়। শান্তির সংকট বড় সংকট। রাসুলের আদর্শই পারে এই সংকট কাটাতে।’

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ধর্মতত্ত্ব অনুষদের সাবেক চেয়ারম্যান, দাওয়াহ অ্যান্ড ইসলামিক স্ট্যাডিজ বিভাগের সাবেক ডীন আবুল কালাম পাটোয়ারী বলেন, ‘আমরা আল কোরআন থেকে দূরে সরে গেছি, রাসুলকে ভালবাসা ভুলে গেছি, আল্লাহ'র ইবাদাত ছেড়ে দিয়েছি। যে কারণে আমাদের উপর জুলুম নির্যাতন নেমে এসেছে।’

দৈনিক নয়াদিগন্তের সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন বলেন, ‘শিক্ষা-দীক্ষায়, ডিফেন্সে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল আর বিলাসিতায় লিপ্ত হয়েছিল যে কারণে মুসলমানরা স্পেনে হেরে যায়। আর জিততে পারেনি। আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে ভোগবিলাসিতা ছেড়ে শিক্ষা-দীক্ষায় বেশি মনোনিবেশ করতে হবে।’

বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লাস ও সিরামিক্স বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘ইসলাম একটি নিছক ধর্মের নাম নয়, ইসলাম এটি পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান। কিন্তু এটা জেনেও আমরা তা মানুষের কাছে পৌছাই নি, বিরোধীদের দাওয়াত দেই নি। ইসলামের কথা বললেই জঙ্গি সন্ত্রাসী যারা আখ্যা দেয় তাদের কাছে বারবার যেতে হবে। ইসলাম ছাড়া শান্তি আসবে না এটা স্পষ্ট জানান দিতে হবে।’

ব্রেকিংনিউজ/ টিটি/ এসএ 

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি